ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  ক্রাইম   »   ১৮৪ কন্টেইনার তেলসহ আটক ৭

১৮৪ কন্টেইনার তেলসহ আটক ৭

September 6, 2016 - 2:10 PM

খুলনায় টিসিবি কর্তৃক জনসাধারণের জন্য সুলভমূল্যে দেওয়া তেল ও চিনি ডিলারদের মাধ্যমে চলে যাচ্ছে কালো বাজারে।

 

আবার ডিলাররাই খোলা বাজারে এসব মালামাল বিক্রি না করে নিজস্ব গোডাউনে মজুদ করছেন। পাশাপাশি নিজে অতিরিক্ত মূল্যে খুচরা বাজারে এবং অন্য ব্যবসায়ীদের কাছেও বিক্রি করছেন।

 

মঙ্গলবার দিনব্যাপী ভ্রাম্যমাণ আদালত খুলনার একাধিক বাজারে অভিযান চালিয়ে এসব কালোবাজারিদের চিহ্নিত করেন। এ সময় হাতেনাতে আটক করা হয় ৭ কালোবাজারিকে। উদ্ধার করা হয় টিসিবির ১৮৪ বোতল (কন্টেইনার) সোয়াবিন তেল এবং ১০ বস্তা চিনি।

 

অভিযানে নেতৃত্ব দেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আতিকুল ইসলাম। উপস্থিত ছিলেন জেলা বাজার কর্মকর্তা আব্দুস সালাম তরফদারসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা।

 

আটককৃতরা হচ্ছেন- নগরীর ময়লাপোতা মোড়ের অদূরে ফারাজীপাড়া রোডস্থ টিসিবির ডিলার মেসার্স আকবর এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মোহাম্মদ আলীর ভাই মো. আল আমিন শিকদার (২৫), নগরীর দৌলতপুর বাজারের হানান এন্টারপ্রাইজের মালিক মো. আসাদুজ্জামান কাজল (৪০), একই বাজারের রশিদ স্টোরের মালিক মো. আব্দুল্লাহ (৩০), ইমরান স্টোরের মালিক মো. আলমগীর (২৮), খালিশপুরস্থ চিত্রালী সুপার মার্কেটের বিসমিল্লাহ স্টোরের মালিক মো. বাদল (৪০), চিত্রালী সুপার মার্কেটস্থ টিসিবির ডিলার মো. ফুলমিয়া (৫৫) এবং মোস্তফা স্টোরের মালিক গোলাম মোস্তফা (৫৫)।

 

আটককৃতদের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান থেকে খোলা বাজারে বিক্রির তেল ও চিনি উদ্ধার করা হয়।

 

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আতিকুল ইসলাম জানান, একজন ডিলার হিসেবে টিসিবি থেকে সর্বোচ্চ ৫ কার্টুন তেল উত্তোলনের সুযোগ রয়েছে। কিন্তু ফারাজীপাড়া রোডস্থ টিসিবির ডিলার মেসার্স আকবর এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মোহাম্মদ আলীর ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ৪১ কার্টুন, অর্থাৎ ১৬৪ বোতল সোয়াবিন তেল। যা তিনি প্রতিষ্ঠানের দ্বিতীয় তলার গোডাউনে মজুদ করে রেখেছিলেন।

 

চিত্রালী সুপার মার্কেটস্থ টিসিবির ডিলার মো. ফুল মিয়া তার প্রতিষ্ঠানে খোলা বাজারে বিক্রি সংক্রান্ত কোনো ব্যানার না ঝুলিয়েই সাধারণ দোকানের মত মালামাল বিক্রি করছেন।

 

অভিযান টের পেয়ে তিনি দোকান বন্ধ করে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। এ ছাড়া আটককৃত অন্যরা খোলা বাজারে বিক্রির মালামাল কালোবাজারে কিনে অতিরিক্ত মূল্যে খুচরা বাজারে বিক্রি করছিলেন। আটককৃতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার মতামত জানানঃ