ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  রাজনীতি   »   হান্নান শাহের প্রথম জানাজা সম্পন্ন

হান্নান শাহের প্রথম জানাজা সম্পন্ন

September 29, 2016 - 6:50 AM

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক : বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আ স ম হান্নান শাহের প্রথম জানাজা সম্পন্ন হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ১০টার দিকে রাজধানীর মহাখালী ডিওএইচএস জামে মসজিদে তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরী, এলডিপি চেয়ারম্যান কর্নেল অলি আহমদ, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ওসমান ফারুক, বিএনপি নেতা নাজিম উদ্দিন ‍আলমসহ বিএনপির নেতা-কর্মীরা অংশ নেন।

এরপর বেলা ১১টায় জাতীয় সংসদ ভবন এলাকায় দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। বাদ জোহর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে তৃতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। জানাজা শেষে মরদেহ আবারও সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হবে।

শুক্রবার সড়কপথে অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হান্নান শাহের মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে তার নির্বাচনী এলাকা গাজীপুরে। সেখানে প্রথমে সকাল ৯টায় জয়দেবপুর রাজবাড়ী মাঠে, সকাল সাড়ে ১০টায় কাপাসিয়া পাইলট উচ্চবিদ্যালয় মাঠে এবং বাদ জুমা মরহুমের গ্রাম চালা বাজার উচ্চবিদ্যালয় মাঠে সর্বশেষ জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে বাবার কবরের পাশেই সমাহিত করা হবে।

বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে হান্নান শাহের মরদেহ সিঙ্গাপুর থেকে দেশে আনা হয়।

মঙ্গলবার সিঙ্গাপুরের স্থানীয় সময় ভোর ৫টা ৩৭ মিনিটে রাইফেলস হার্ট সেন্টার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন হান্নান শাহ।

অসুস্থ হয়ে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন হান্নান শাহকে উন্নত চিকিৎসার জন্য গত ১১ সেপ্টেম্বর সিঙ্গাপুরে নেওয়া হয়। ওই হাসপাতালে তার হার্টের অপারেশন করা হয়।

এর আগে গত ৬ সেপ্টেম্বর সকাল সাড়ে ৮টার দিকে মহাখালী ডিওএইচএসের বাসা থেকে নিম্ন আদালতে হাজিরা দিতে যাওয়ার সময়ে হান্নান হঠাৎ হৃদরোগে আক্রান্ত হন। সে সময় দ্রুত তাকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাকে কয়েক দিন রাখার পর চিকিৎসকদের পরামর্শক্রমে সিঙ্গাপুরে নিয়ে যাওয়া হয়।

বিএনপির সর্বোচ্চ দলীয় নীতিনির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য আ স ম হান্নান শাহ চারদলীয় জোট সরকারের মন্ত্রী ও সংসদ সদস্য ছিলেন। প্রাক্তন এই সেনা কর্মকর্তা চাকরি জীবন শেষে বিএনপির রাজনীতিতে প্রবেশ করেন। ২০০১ সালে বিএনপি ক্ষমতাসীন থাকার সময় পাট মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পান।

আপনার মতামত জানানঃ