ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  শিক্ষা   »   সেপ্টেম্বর পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়াতে পারে

সেপ্টেম্বর পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়াতে পারে

জুলাই ২৯, ২০২০ - ৪:০৯ অপরাহ্ণ
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি

মহামারী করোনার কারণে আগামী ৬ আগস্ট শেষ হচ্ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি। তবে চলমান পরিস্থিতি এখনও স্বাভাবিক না হওয়ায় ছুটি আরও বাড়তে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্টরা।

আগামী সেপ্টেম্বর পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়ানো হতে পারে বলে ইতিমধ্যে সরকারের দায়িত্বশীলরা জানিয়েছেন।

আরেক দফা ছুটি বৃদ্ধির ঘোষণা বুধবার (২৯ জুলাই) দেওয়া হতে পারে বলে জানা গেছে। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে। আগামী আগস্ট পুরো ছুটি ঘোষণা করে সেপ্টেম্বর থেকে ক্লাস শুরুর পরিকল্পনা রয়েছে। ইতোমধ্যে সে আলোকে সিলেবাস সংক্ষিপ্ত করার প্রক্রিয়াও শুরু হয়েছে।

করোনার কারণে গত মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। আগামী ৬ আগস্ট সে ছুটি শেষ হচ্ছে। ৩১ জুলাই থেকে ঈদুল আযহার ছুটি শুরু হওয়ায় নতুন করে ছুটি বৃদ্ধির ঘোষণা আজই দেয়া হতে পারে বলে জানা গেছে। তবে এইচএসসি পরীক্ষার বিষয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্তে আসতে পারেনি শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

সম্প্রতি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আকরাম-আল-হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, পরিস্থিতি অনুযায়ী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার অবস্থা তৈরি হয়নি। সেপ্টেম্বরের আগে সেটা নাও হতে পারে। প্রাতিষ্ঠানিক লেখাপড়া সেপ্টেম্বর থেকে শুরুর প্রস্তুতির অংশ হিসেবে সিলেবাস ও কারিকুলাম পর্যালোচনা চলছে। কর্মদিবস বিবেচনায় নিয়ে সিলেবাস সংক্ষেপ হচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা একাডেমি (নেপ) কাজ করছে বলেও জানান তিনি।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মাহবুব হোসেন বলেন, শিক্ষার্থীদের সুরক্ষার বিষয়টি মাথায় রেখে সকল সিদ্ধান্ত নেব। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে চিন্তা করা হবে। বন্ধের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে কয়েকটি পরিকল্পনা হাতে নিয়েছি। পরিস্থিতি বিবেচনায় তা বাস্তবায়ন করা হবে। ৬ আগস্টের পর ছুটি বাড়ছে কি না তা ঈদের আগেই জানিয়ে দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

জানা গেছে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ঈদের পর না হলেও আগামী সেপ্টেম্বরে খুলে দেয়ার প্রস্তুতি চলছে। যদি পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হয় এবং শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিয়ে দায়িত্বশীলরা আশ্বস্ত হন তাহলেই প্রতিষ্ঠানগুলো খুলে দেয়া হবে। আপাতত দুটি পরিকল্পনা রয়েছে। একটি সেপ্টেম্বরে খুলে দেয়া, অপরটি যে কোনো সময়ে খুলে দেয়া।

Tags:

আপনার মতামত জানানঃ