ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  আন্তর্জাতিক   »   সীমান্ত থেকে বাসিন্দাদের সরিয়ে নিচ্ছে ভারত

সীমান্ত থেকে বাসিন্দাদের সরিয়ে নিচ্ছে ভারত

September 29, 2016 - 12:56 PM

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পর টানটান উত্তেজনার পরিপ্রেক্ষিতে পাকিস্তান সীমান্ত সংলগ্ন পাঞ্জাবের ১০ কিলোমিটার এলাকা থেকে বাসিন্দাদের সরিয়ে নিচ্ছে ভারত।

পাকিস্তানের পাল্টা হামলার আশঙ্কায় বৃহস্পতিবার ওই সব এলাকা থেকে বাসিন্দাদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে পাঞ্জাব সরকার।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঞ্জাব সরকারকে এ বিষয়ে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

পাকিস্তানের সঙ্গে ভারতের পাঞ্জাবের ৫৫৩ কিলোমিটার সীমান্ত এলাকা রয়েছে। সীমান্তবর্তী হওয়ার কারণে ১৯৬৫ ও ১৯৭১ সালে ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধে এ রাজ্য রণক্ষেত্রে পরিণত হয়েছিল।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, স্থানীয় কর্তৃপক্ষ সীমান্তবর্তী গ্রামের বাসিন্দাদের নিরাপদ স্থানে সরে যাওয়ার জন্য লাউড স্পিকারে নির্দেশনা দিয়েছে। ওই সব এলাকার স্কুল ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে।

সূত্রের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ সীমান্তে টহল জোরদার করেছে।

প্রসঙ্গত, বুধবার মধ্যরাতে নিয়ন্ত্রণ রেখা পেরিয়ে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের জঙ্গি ঘাঁটিতে আঘাত হেনেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। একে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক বলে দাবি করেছেন ভারতীয় সেনাবাহিনীর ডিজিএমও রণবীর সিংহ।

সেনা সূত্রের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, মোট সাতটি জঙ্গি ঘাঁটিতে হামলা চালিয়েছে ভারত। অভিযানে অন্ততঃ ৩৫ জঙ্গির মৃত্যু হয়েছে। এসময় ভারতীয় বাহিনীর গোলার আঘাতে দুই পাকিস্তানি সেনাও নিহত হয়েছে।

এদিকে পাকিস্তান সরকারের পক্ষ থেকে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের কথা অস্বীকার করা হয়েছে। তাদের দাবি , ভারত বিনা উস্কানিতে গোলাবর্ষণ করেছে।

পাকিস্তান সেনাবাহিনীর ইন্টার সার্ভিস পাবলিক রিলেশন্স (আইএসপিআর) জানিয়েছে, ‘আন্তঃসীমান্তে বিনা উস্কানিতে ভারত গুলি চালিয়ে দুই পাক সেনাকে হত্যা করেছে। তথ্য সন্ত্রাস চালিয়ে সীমান্তে দুই পক্ষের সেনার গুলিবিনিময়ের মতো সত্যকে ঢেকে একে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের তকমা দেওয়ার ভারতীয় অপচেষ্টা এটি। পাকিস্তান পরিষ্কারভাবে বলতে চায়, যদি পাকিস্তানের মাটিতে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক চালানো হয়, তাহলে একই জবাব দেওয়া হবে ভারতকে।’

আপনার মতামত জানানঃ