ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  জাতীয়প্রধান সংবাদ   »   সরকারি চাকরিজীবীদের দৈনিক ভাতা বাড়ানো হয়েছে

সরকারি চাকরিজীবীদের দৈনিক ভাতা বাড়ানো হয়েছে

October 2, 2016 - 7:40 AM

ডেক্স: সরকারি চাকরিজীবীদের দৈনিক ভাতা বাড়ানো হয়েছে। ভ্রমণ ভাতা ও সড়ক ভাতা পুননির্ধারণ করা হয়েছে।

ব্যয়বহুল স্থানে অর্থাৎ ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা, রাজশাহী, বরিশাল, রংপুর, সিলেট, নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুর নগরী এবং সাভার পৌর এলাকার ক্ষেত্রে দৈনিক ভাতা সাধারন হারের চেয়ে ৩০ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে।

অর্থমন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ভাতার ক্ষেত্রে সরকারি চাকরিজীবীদের চারটি শ্রেণিবিন্যাস করা হয়েছে। এতে নবম, দশমসহ ঊর্ধ্বতন গ্রেডধারী সরকারি চাকরিজীবীরা ‘ক’ শ্রেণিতে রয়েছেন। তবে নবম ও দশম গ্রেডের ক্ষেত্রে যাদের মূল বেতন ২৯ হাজার টাকা তারাই শুধু ‘ক’ শ্রেণিতে থাকছেন। ‘খ’ শ্রেণিতে যাদের মূল বেতন ২৯ হাজার টাকার কম তারা ও ১১ থেকে ১৬তম গ্রেডধারীরা রয়েছেন। তবে ১৬তম গ্রেডধারীদের যাদের মূল বেতন মাসিক ১৬ হাজার টাকা কিংবা তার বেশি তারাই শুধু ‘খ’ শ্রেণিতে রয়েছেন।

সূত্র জানায়, যাদের মূল বেতন ১৬ হাজার টাকার কম তারা অর্থাৎ ১১ থেকে ১৬তম গ্রেডের বাকি সবাই ‘গ’ শ্রেণিতে রয়েছেন। এছাড়া ফরেস্ট গার্ড, পুলিশ কনস্টেবল (প্রধান কনস্টেবল ব্যতীত), জেল ওয়ার্ডার, পেটি অফিসার, কিশোর অপরাধী সংশোধনী প্রতিষ্ঠানের দ্বাররক্ষীসহ ১৭ থেকে ২০তম গ্রেডের চাকরিজীবীদের ‘ঘ’ শ্রেণিতে রাখা হয়েছে।

‘ক’ শ্রেণিতে ৭৮ হাজার টাকা এবং তার ওপরে যারা মূল বেতন পান তারা বর্তমানে এক হাজার ৪০০ টাকা করে সাধারণ হারে ভাতা পাচ্ছেন। ৭১ হাজার ১ টাকা থেকে ৭৭ হাজার ৯৯৯ টাকা পর্যন্ত যাদের মূল বেতন তারা ১ হাজার ২২৫ টাকা দৈনিক সাধারণ ভাতা পাচ্ছেন। এছাড়া ৫০ হাজার ১ টাকা থেকে ৭১ হাজার টাকা পর্যন্ত মূল বেতনধারীরা এক হাজার ৫০, ২৯ হাজার ১ থেকে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত ৮৭৫ টাকা এবং ২২ হাজার থেকে ২৯ হাজার পর্যন্ত ৭০০ টাকা করে দৈনিক সাধারণ ভাতা পাচ্ছেন।

‘খ’ শ্রেণিতে ২৯ হাজার টাকার কম মূল বেতনধারী এবং ১০ম গ্রেডের সব কর্মচারি ৪৯০ টাকা এবং ১৬ হাজার টাকা বা তার বেশি বেতন গ্রহণকারী ১১ থেকে ১৬তম গ্রেডের সব কর্মচারি ৪২০ টাকা করে দৈনিক সাধারণ ভাতা পাচ্ছেন।

‘গ’ শ্রেণিতে ‘খ’ শ্রেণি ছাড়া ১১ থেকে ১৬ গ্রেডের সবাই ৩৫০ টাকা এবং ‘ঘ’ শ্রেণিতে ১৭ থেকে ২০তম গ্রেডের সবাই ৩০০ টাকা করে সাধারণ ভাতা পাচ্ছেন।

ভ্রমণের দূরত্ব নির্বিশেষে সড়ক পথে ভ্রমণের জন্য ‘ক’ শ্রেণিভুক্তরা প্রতি কিলোমিটারের জন্য ৩ টাকা ৭৫ পয়সা, ‘খ’ শ্রেণি ৩ টাকা, ‘গ’ শ্রেণি ২ টাকা ২৫ পয়সা এবং ‘ঘ’ শ্রেণি ১ টাকা ৫০ পয়সা হারে ভাতা পাবেন।

এছাড়া রেলপথে ভ্রমণ, সমুদ্র বা নদীপথে স্টিমার/জাহাজ/লঞ্চে ভ্রমণ, বাস ও বিমানে ভ্রমণের ভাতা পুনঃনির্ধারন করা হয়েছে।

বদলিজনিত ভ্রমণ ভাতার ক্ষেত্রে ট্রেন/স্টিমার/লঞ্চ/জাহাজে ভ্রমণে নিজের জন্য প্রাপ্য শ্রেণির তিনটি ভাড়া, পরিবারের প্রত্যেক সহগামী (স্ত্রীসহ সর্বোচ্চ তিনজন) সদস্যের জন্য একটি পূর্ণ ভাড়া। সড়ক পথে ভ্রমণের ক্ষেত্রে নিজের জন্য প্রাপ্য শ্রেণির দুটি ভাড়া। পরিবারের প্রত্যেক সহগামী (স্ত্রীসহ সর্বোচ্চ তিনজন) এবং বিমানে নিজের জন্য প্রাধিকার অনুযায়ী একটি ভাড়া পাবেন।

বদলির সময়ে পরিবহনের জন্য নিজস্ব মালামালের পরিমাণ এবং প্যাকিং চার্জেও প্রাপ্যতা অনুযায়ী ‘ক’ শ্রেণি একাকী ভ্রমণের ক্ষেত্রে ১৫০০ কেজি, সপরিবারে ভ্রমণের ক্ষেত্রে ২৩০০ কেজির জন্য প্যাকিং চার্জ হিসেবে পাবেন ২২৫০ টাকা। ‘খ’ শ্রেণির কর্মচারি একাকী ভ্রমণের ক্ষেত্রে ৮০০ কেজি, সপরিবারে ভ্রমণের ক্ষেত্রে ১২০০ কেজির প্যাকিং চার্জ হিসেবে পাবেন ৭৫০ টাকা এবং ‘ঘ’ শ্রেণির কর্মচারি একাকী ভ্রমণের ক্ষেত্রে ২০০ কেজি, সপরিবারে ভ্রমণের ক্ষেত্রে ৩০০ কেজির জন্য প্যাকিং চার্জ পাবেন ৪০০ টাকা। বদলিজনিত মালামাল পরিবহনের ক্ষেত্রে ব্যক্তিগত মালামাল এক কিলোমিটার পরিবহনের জন্য প্রতি কেজির ভাড়া বাবদ দুই টাকা হারে ভাতা পাবেন।

আপনার মতামত জানানঃ