ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  ক্রাইম   »   সন্তানের দেওয়া আগুনে পুড়ে হতভাগ্য বাবা মৃত্যু

সন্তানের দেওয়া আগুনে পুড়ে হতভাগ্য বাবা মৃত্যু

September 21, 2016 - 1:46 PM

ফরিদপুর প্রতিনিধি : ফরিদপুর শহরের কমলাপুর এলাকায় সন্তানের দেওয়া আগুনে পুড়ে সাত দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে মারা গেছেন হতভাগ্য বাবা এটিএম রফিকুল হুদা।

বুধবার ভোরে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের (ঢামেক) আইসিইউতে মারা যান তিনি।

এ ঘটনায় নিহতের ভগ্নিপতি মো. আকরাম উদ্দিন বাদী হয়ে সন্তান ফারদিন হুদা মুগ্ধকে আসামি করে কোতোয়ালি থানায় মামলা দায়ের করেছেন। আর ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী পিতাহন্তারকের বিচার দাবি করেছেন।

নিহতের পারিবারিক সূত্র জানায়, কয়েক মাস আগে মুগ্ধকে ইয়ামাহা (আর১৫ ভি২) মডেলের একটি মোটরসাইকেল কিনে দেন বাবা এটিএম রফিকুল হুদা ও মা সিলভিয়া হুদা দম্পতি। কয়েকদিন আগে ওই মোটরসাইকেল বিক্রি করে ইয়ামাহা (কেটিএম) মডেলের মোটরসাইকেল কিনে দেওয়ার দাবি জানায় ছেলে মুগ্ধ। রফিকুল হুদা মোটরসাইকেল কিনে দিতে অস্বীকার করলে ১৫ সেপ্টেম্বর বিকেলে বাবার সঙ্গে বাগবিত-ার এক পর্যায়ে ঘরের মধ্যে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় মুগ্ধ। এতে দগ্ধ হন রফিকুল হুদা। তাৎক্ষণিক তাকে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে ঢামেক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

মুগ্ধ এ বছর ফরিদপুর জেলা স্কুল থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে উত্তীর্ণ হয়। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ স্কুলের শিক্ষার্থীরাও।

এদিকে এ ঘটনাকে দুঃখজনক উল্লেখ করে খুনির বিচার দাবি করেছেন এলাকাবাসী।

সুশীল সমাজের প্রতিনিধি বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড সার্ভিসেস (ব্লাস্ট), ফরিদপুরের সমন্বয়কারী অ্যাড. শিপ্রা গোস্বামী মনে করেন, পরিবারের নানা অসঙ্গতির কারণেই এ ঘটনা ঘটেছে, তাই এজন্য পরিবারকেই সচেতন হতে হবে।

এদিকে কোতোয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. নাজিম উদ্দিন জানান, নিহতের ভগ্নিপতি মো. আকরাম উদ্দিন বাদী হয়ে সন্তান ফারদিন হুদা মুগ্ধকে আসামি করে কোতোয়ালি থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

আপনার মতামত জানানঃ