ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  আইন-আদালত   »   সখীপুরের ইউএনও-ওসির বিষয়ে আদেশ ১৮ অক্টোবর

সখীপুরের ইউএনও-ওসির বিষয়ে আদেশ ১৮ অক্টোবর

September 27, 2016 - 9:23 AM

নিজস্ব প্রতিবেদক : টাঙ্গাইলের সখীপুরের স্কুল শিক্ষার্থীকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে কারাদণ্ড দেওয়ার ঘটনায় স্থানীয় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রফিকুল ইসলাম ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাকসুদুল আলমের বিষয়ে আদেশের জন্য আগামী ১৮ অক্টোবর দিন ধার্য করেছেন হাইকোর্ট।

মঙ্গলবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি আশীষ রঞ্জন দাসের বেঞ্চ শুনানি শেষে আদেশের জন্য এ দিন ধার্য করেন।

আদালতে ইউএনও ও ওসির পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী নুরুল ইসলাম সুজন ও শ ম রেজাউল করিম। অপর পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান।

এর আগে গত ২০ সেপ্টেম্বর স্কুল শিক্ষার্থীকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে কারাদণ্ড দেওয়ার ঘটনায় ইউএনও ও ওসিকে ব্যাখ্যা দিতে তলব করেন হাইকোর্ট।

স্থানীয় সংসদ সদস্য সম্পর্কে ফেসবুকে মন্তব্য করায় ওই স্কুল ছাত্রকে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে বলে একটি ইংরেজি দৈনিকে প্রকাশিত প্রতিবেদন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান আদালতের নজরে আনলে হাইকোর্ট এই আদেশ দেন।

সে অনুযায়ী তারা হাজির হয়ে আদালতে ব্যাখ্যা দাখিল করেন। এই সময় দণ্ডপ্রাপ্ত ছাত্র সাব্বির শিকদার আদালতে ঘটনার বর্ণনা দেয়।

খুরশীদ আলম খান বলেন, ‘আমি আদালতকে বলেছি, যেখানে ওই ঘটনায় একটি জিডি হয়েছে। সে ক্ষেত্রে বিষয়টি তদন্তের পর্যায়ে রয়েছে। তদন্তের পর্যায়ে থাকা কোনো বিষয়ে এভাবে মোবাইল কোর্টে দণ্ড দেওয়া যায় না। আর আসামি যদি শিশু হয়, তাকে শিশু আইনে বিচার করতে হতো। সেটাও দেখতে হবে। এরপর আদালত তলবের আদেশ দেন।’

পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ১৭ অক্টোবর রফিকুল ইসলাম ওই বালককে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে দুই বছরের কারাদণ্ড দেন। এর আগের দিন টাঙ্গাইল-৮ বাসাইল-সখীপুর আসনের সংসদ সদস্য অনুপম শাজাহান জয় ওই বালকের বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। দণ্ডের পর সোমবার ওই বালককে জেলা কারাগারে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। সখীপুরের প্রতিমা বঙ্কি গ্রামের বাসিন্দা শাহিনুর আলমের ছেলে সাব্বির শিকদার।

আপনার মতামত জানানঃ