ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  অর্থনীতিজাতীয়   »   শ্রমিকরা সময়মতো বেতন পাবেনঃ বিজিএমইএ

শ্রমিকরা সময়মতো বেতন পাবেনঃ বিজিএমইএ

মার্চ ২৪, ২০২০ - ১০:৩৪ পূর্বাহ্ণ
 জেষ্ঠ্য প্রতিবেদকঃ করোনা ভাইরাসের কারণে পোশাকখাত স্থবির হয়ে গেলেও নির্ধারিত সময়ে এই খাতের শ্রমিকরা তাদের বেতন পাবেন বলে আশ্বস্ত করেছেন বাংলাদেশ পোশাক উৎপাদন ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) সভাপতি ড. রুবানা হক।
তিনি বলেন, বেতনের সময় বেতন পাবেন, দয়া করে এটি মাথায় রাখবেন।
সোমবার (২৩ মার্চ) গণমাধ্যমে পাঠানো এক ভিডিও বার্তায় এ কথা জানান বিজিএমইএর সভাপতি।
শ্রমিকদের গুজবে কান না দেওয়ার পরামর্শ দিয়ে ড. রুবানা হক বলেন, শ্রমিক ভাই ও বোনেরা তার বেতন সময় মতো পাবেন। কেউ ভয় পাবেন না। ভরসা রাখুন। সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে আমাদের আশ্বস্ত করা হয়েছে। তারা প্রত্যেকে আমাদের পাশে আছেন। প্রধানমন্ত্রীর ওপর ভরসা রাখুন। আমাদের তৈরি পোশাক খাতের ৪১ লাখ শ্রমিক শুধু নয়, এর বাইরেও যারা আছেন সবাই ভরসা রাখুন। যতদিন উনি (প্রধানমন্ত্রী) আমাদের পাশে আছেন, আমরা কেউ পানিতে পড়বো না। দয়া করে ভরসা রাখুন আপনারা।
করোনা ভাইরাসের কারণে সারা বিশ্ব স্থবির হয়ে পড়েছে। প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশের পোশাক খাতেও। একের পর এক ক্রয় আদেশ বাতিল হওয়ায় এই নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বিজিএমইএর সভাপতি রুবানা হক।
করোনার কারণে পোশাকখাতে ভয়াবহ বিপর্যয় নেমে এসেছে জানিয়ে বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, আমাদের অর্ডার পরিস্থিতি অত্যন্ত শোচনীয়। গত চারদিনে দেড় বিলিয়ন ডলার অর্ডার ক্যানসেল হয়েছে। এসব কারখানায় ১২ লাখ শ্রমিক কাজ করেন।
রুবানা বলেন, কেউ বলছেন আংশিকভাবে কেউ বলছেন একেবারে ক্যানসেল, কেউ বলছে আমরা আলোচনা করবো। আলোচনা করবো বলেও আমাদের আশা থাকে, কিন্তু একেবারে ক্যানসেল করলে আমাদের কোনো আশা থাকে না। বায়ারা এই সিজনের মাল কোনো সময় নেবে সেটাও বলছে না। আমরা চরম একটি অনিশ্চয়তার মধ্যে আছি।
রুবানা হক বলেন, এটা কিন্তু শুধু যে প্রতিষ্ঠানগুলো আমাদের বিজিএমইএর পোর্টালে এন্ট্রি দিয়েছে তারা, এর বাইরেও প্রচুর ফ্যাক্টরি রয়েছে। আমরা চেষ্টা করছি প্রত্যেকে উৎসাহী করতে, ধৈর্ হারালে হবে না। আগামী ২৫ মার্চ জাতীর উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী ভাষণ দেবেন। আমরা যেন তার ভাষণের জন্য অপেক্ষা করি। আমারা কোনো মতে আতঙ্কগ্রস্ত হবো না। এখন এমন প্রশ্ন যেন না হয় যে, কোনো ফ্যাক্টরি বন্ধ হচ্ছে। আমাদের দেখতে হবে শ্রমিক ভাই ও বোনেরা তার বেতন সময় মতো পাবেন কিনা। সেটা তারা পাবেন। বেতনের সময় যখন আসবে তখন তারা সেটা পাবেন। কেউ ভয় পাবেন না। প্রধানমন্ত্রীর ওপর ভরসা রাখুন।

আপনার মতামত জানানঃ