ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  খেলাধুলা   »   শেষ আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ম্যাচটি জয় দিয়ে রাঙিয়ে রাখা হলো না তিলকরত্নে দিলশানের

শেষ আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ম্যাচটি জয় দিয়ে রাঙিয়ে রাখা হলো না তিলকরত্নে দিলশানের

August 29, 2016 - 4:53 AM

ক্রীড়া ডেস্ক : জীবনের শেষ আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ম্যাচটি জয় দিয়ে রাঙিয়ে রাখা হলো না তিলকরত্নে দিলশানের। সিরিজের তৃতীয় এই ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ২ উইকেটে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

ডাম্বুলায় রোববার আগে ব্যাট করে দিনেশ চান্দিমালের সেঞ্চুরির পরও ২২৬ রানে অলআউট হয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। জবাবে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৪ বল বাকি থাকতেই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় অস্ট্রেলিয়া।

এই জয়ে পাঁচ ম্যাচ সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে গেল সফরকারীরা। বুধবার একই মাঠে হবে চতুর্থ ওয়ানডে।

এদিন টস জিতে ব্যাট করতে নেমেছিল শ্রীলঙ্কা। সতীর্থদের গার্ড অব অনার আর গ্যালারি ভরা দর্শকের অভিনন্দনের মাঝে ব্যাটিংয়ে নেমেছিলেন দিলশান। কিন্তু শ্রীলঙ্কা ২৩ রানেই ২ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে যায়। সেখান থেকে তৃতীয় উইকেটে দিলশান-চান্দিমালের ৭৩ রানের জুটিতে প্রথমিক ধাক্কা সামাল দেয় তারা।

দিলশানের বিদায়ে ভাঙে এ জুটি। ৩৩০ ওয়ানডের ক্যারিয়ারের শেষটায় দিলশান আউট হয়েছেন ফুল টস বলে। অস্ট্রেলিয়ান স্পিনার অ্যাডাম জাম্পার বলে ধরা পড়েছেন মিড উইকেটে (৬৫ বলে ৪২)।

এরপর অস্ট্রেলিয়ানদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে দ্রুত ফিরে যান অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস ও ধনাঞ্জয়া ডি সিলভাও। সেখান থেকে দলকে বলতে গেলে একাই টেনেছেন চান্দিমাল।

শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে ১৩০ বলে ১০২ রান করে আউট হন চান্দিমাল। ক্যারিয়ারের চতুর্থ ওয়ানডে সেঞ্চুরির ইনিংসটিতে ছিল ৭টি চারের মার।

৩৮ রানে ৩ উইকেট নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার সেরা বোলার জাম্পা। এ ছাড়া জেমস ফকনার, জন হাস্টিং ও মিচেল স্টার্ক নেন ২টি করে উইকেট।

জবাবে অস্ট্রেলিয়ার শুরুটাও ভালো হয়নি। ৪৪ রানের মধ্যেই ফিরে যান ওপরের দিকের তিন ব্যাটসম্যান ডেভিড ওয়ার্নার (১০), অ্যারন ফিঞ্চ (৩০) ও শন মার্শ (১)। তবে মিডল অর্ডারের দৃঢ়তায় সেই ধাক্কা সামলে ওঠে সফরকারীরা।

চতুর্থ উইকেটে ট্রাভিস হেডকে (৩৬) নিয়ে ৬২ রানের জুটি গড়েন জর্জ বেইলি। পঞ্চম উইকেটে ম্যাথু ওয়েডের (৪২) সঙ্গে ৮১ রানের আরেকটি ভালো জুটি গড়েন তিনি।

তখন মনে হচ্ছিল, অনায়াসেই জিতে যাবে অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু শেষদিকে দ্রুত কয়েকটি উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় অসিরা। শেষ পর্যন্ত অবশ্য জয়ের হাসি হাসে তারাই। ইনিংস সর্বোচ্চ ৭০ রান আসে বেইলির ব্যাট থেকেই।

শ্রীলঙ্কার পক্ষে অধিনায়ক ম্যাথুস, দিলরুয়ান পেরেরা ও অ্যামিলা আপোনসো নেন ২টি করে উইকেট। ওয়ানডেতে শেষবার বল হাতে নিয়ে ৪ ওভারে ২৪ রান দিয়ে কোনো উইকেট পাননি দিলশান।

আপনার মতামত জানানঃ