ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  জাতীয়প্রধান সংবাদ   »   শেষদিনে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড মেলায় প্রযুক্তি প্রেমিদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে

শেষদিনে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড মেলায় প্রযুক্তি প্রেমিদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে

October 21, 2016 - 10:57 AM

নিজস্ব প্রতিবেদক : শেষদিনে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড মেলায় প্রযুক্তি প্রেমিদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

অসহ্য গরমকে উপেক্ষা করে সব বয়সি প্রযুক্তিপ্রেমীরা শুক্রবার সকাল থেকেই ভিড় করে মেলা প্রাঙ্গণে। রাজধানীর আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটি বসুন্ধরা (আইসিসিবি) রূপ নেয় মিলনমেলায়।

দর্শনার্থীরা মেলায় বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখেন। বিভিন্ন বিষয়ে খোঁজ খবর নেন। পাশাপাশি অংশ নেন প্রযুক্তি বিষয়ক নানা সেমিনারে। শোনেন ভবিষ্যতের বিশ্ব সম্পর্কে। তবে সেখানে তারুণ্যের উপস্থিতি ছিল লক্ষণীয়। অনেকেই বলছেন, এদের হাতেই আগামীর দেশ। এরাই গড়বে প্রকৃত ডিজিটাল বাংলাদেশ।

জনতা ব্যাংকের স্টল কর্মকর্তা আবদুস সোবহান জানান, মেলায় আসা দর্শনার্থীদের দেখাচ্ছি ‘ডিজিটাইলেজশনের’দৌড়ে কতটা এগিয়েছি আমরা। দর্শনার্থীরাও তা আগ্রহ নিয়ে দেখছেন। যারা আমাদের ভবিষ্যৎ গ্রাহক, সেইসব স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরাই বেশি আগ্রহ দেখাচ্ছেন। নানা ধরনের প্রশ্ন করছেন, জানতে চাচ্ছেন, এটি আমাদের উৎসাহিত করছে। কারণ তাদের প্রশ্নগুলো আমাদের যৌক্তিক মনে হচ্ছে। এইসব ভবিষ্যৎ গ্রাহকদের মন জয় করতে আমাদের আরো পথ হাঁটতে হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হাসিবুর রশীদ জানান, তথ্য প্রযুক্তিতে বাংলাদেশ অনেক দ্রুত এগিয়ে চলেছে। এর মধ্যে এমন একটি আয়োজন সত্যিই প্রশংসনীয়। আমি গত মেলায়ও এসেছিলাম। এবারও এসেছি। প্রযুক্তিবেইসড একটি ব্যবসা খুলতে চাচ্ছি। সে বিষয়ক বিভিন্ন সফটওয়্যার নেওয়ার ইচ্ছে আছে। ইতোমধ্যে একটি স্টলে কথাও হয়েছে।

কাজী নজরুল কলেজের শিক্ষার্থী আবু হানিফ জানান, দেশে নতুন নতুন অ্যাপ তৈরি হচ্ছে। নতুন নতুন অ্যাপের সাহায্যে অনেক বড় সমস্যাও এখন সমাধান করা সম্ভব। দেশের উন্নয়নের পাশাপাশি প্রযুক্তিগত দিক থেকেও অনেক অগ্রসর দেখা যাচ্ছে। মেলায় নতুন কোনো সফটওয়্যার পাওয়া যায় কি না দেখছি। মেলা ঘুরে দেখলাম। বেশ ভালই লাগছে।

এবারের ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি অংশগ্রহণ করছে দেশের স্বনামধন্য ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিকস ও হোম অ্যাপ্লায়েন্স প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন। কনভেনশন সিটির চার নম্বর হলে ওয়ালটন মোবাইল ও ল্যাপটপের স্টল।

এ আয়োজনে মাইক্রোসফট, ফেসবুক, একসেন্সার, বিশ্বব্যাংক, জেডটিই, হুয়াওয়েসহ তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের ৪৩ জন প্রতিনিধি অংশ নিয়েছেন।

ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের আয়োজক তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগ। সহআয়োজক বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল, অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) ও বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস।

‘ডিজিটাল বিশ্বে ননস্টপ বাংলাদেশ’ এই প্রতিপাদ্যকে ধারন করে আইসিসিবিতে বুধবার থেকে শুরু হয় তিন দিনব্যাপী ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৬।

আপনার মতামত জানানঃ