ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  Uncategorized   »   শিশু হৃদয় হত্যা মামলার আসামীদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবীতে নালিতাবাড়ীতে শিক্ষার্থীদের মানব বন্ধন

শিশু হৃদয় হত্যা মামলার আসামীদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবীতে নালিতাবাড়ীতে শিক্ষার্থীদের মানব বন্ধন

October 5, 2016 - 4:21 PM

শেরপুর প্রতিনিধি :  শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার জয়নুদ্দিনপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২য় শ্রেণির শিক্ষার্থী হৃদয় মিয়া (১০) হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবীতে মানব বন্ধন করেছে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী। আজ ৫ অক্টোবর বুধবার সকালে স্থানীয় আমবাগান বাজার এলাকায় এ মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানব বন্ধন শেষে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, জয়নুদ্দিনপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক-শহিদুল আলম মাসুম, ভেদীকুড়া নি¤œ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আজিজুল হক, সহকারী শিক্ষক ছামেদুল ইসলাম, মনিরুজ্জামান, শান্তনা রানী দাশ, নাছিমা আক্তার, নাছিমা খাতুন, জাহানারা বিলকিছ, এলাকাবাসী আক্কাছ আলী প্রমুখ। এসময় তারা হৃদয় হত্যাকারী মাদকাসক্ত মিজান ও তার স্ত্রীকে দ্রুত গ্রেফতার এবং ফাঁসির দাবী জানায়। এর আগে শিক্ষার্থীরা একই দাবীতে মিছিল করে।
উল্লেখ্য, গত ২০ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার বিকেল পাঁচটার দিকে খেলার সাথীদের সাথে বেরিয়ে নিখোঁজ হয় শেহড়াতলী গ্রামের দিনমজুর তোফাজ্জল হোসেনের বড় ছেলে ও জয়নুদ্দিনপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২য় শ্রেণির শিক্ষার্থী হৃদয় মিয়া। অনেক খোঁজাখুঁজির পর হৃদয়কে না পেয়ে বুধবার আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় নিখোঁজ সংবাদের মাইকিং করায় তার পরিবার। বৃহস্পতিবার সকালে নালিতাবাড়ী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে পিতা তোফাজ্জল হোসেন। ওই দিনই বিকেলে স্থানীয় একটি পুকুর থেকে ভাসমান অবস্থায় নিখোঁজ শিশু হৃদয় মিয়ার অর্ধগলিত মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে এ নিয়ে তোফাজ্জল হোসেন বাদী হয়ে একই এলাকার প্রতিবেশি মাদকাসক্ত মিজানুর রহমান মিজান ও তার স্ত্রী ফেদৌসীকে আসামী করে নালিতাবাড়ী থানায় হত্যা মামলা দায়ের করে। বর্তমানে আসামীদ্বয় পলাতক রয়েছে।
পুলিশ ও পারিবারিক সূত্র জানায়, মাছ চাষের পুকুর লীজ নেওয়া নিয়ে স্থানীয় মাদকাসক্ত মিজানুর রহমানের সঙ্গে নিহত শিশুর পিতা তোফাজ্জলের বিরোধ ছিল।

আপনার মতামত জানানঃ