ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  আইন-আদালত   »   রাজধানীতে ছাত্রীকে ধর্ষণ ও হত্যাঃ আদালতে আসামি

রাজধানীতে ছাত্রীকে ধর্ষণ ও হত্যাঃ আদালতে আসামি

জানুয়ারি ৮, ২০২১ - ৪:১৬ অপরাহ্ণ

রাজধানীতে গ্রুপ স্টাডির কথা বলে ডেকে নিয়ে ‘ও’ লেভেলের ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে দায়ের হওয়া মামলার প্রধান আসামিকে নেয়া হয়েছে আদালতে। সর্বোচ্চ সাজা দাবি করেছেন শোকার্ত স্বজনরা।

এদিকে, পুলিশের দেয়া প্রাথমিক সুরতহালে দেহের আর কোথাও আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। মৃত্যুর প্রকৃত কারণ নির্ধারণে চলছে ময়নাতদন্ত।

সন্তান সুস্থ অবস্থায় বাসা থেকে বের হয়ে লাশ হয়ে ফিরবেন সেটা কিছুতেই মানতে পারছেন না মা ও স্বজনরা। বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) সকালে গ্রুপ স্টাডির কথা বলে বাসা থেকে বের হয় রাজধানীর ধানমণ্ডির মাস্টারমাইন্ড স্কুলের ‘ও’ লেভেলের ওই শিক্ষার্থী।

চিকিৎসকরা জানান, বন্ধুর বাসায় গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়ে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়।

এমন ঘটনায় জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি পরিবারের।

স্বজনদের দাবি, তাকে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর ধর্ষণ করে হত্যা করা হয়। দোষীকে সর্বচ্চো শাস্তি দিতে হবে।

এ ঘটনায় প্রেসক্লাবের সামনে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থীসহ কয়েকটি সংগঠন। দাবী একটাই, দোষীর সর্বোচ্চ শাস্তি।

ঢাকা মেট্রোপলিটন রমনা বিভাগের ডিসি সাজ্জাদুর রহমান বলেন, ময়নাতদন্তের ক্যামিকেল এক্সামিনেশনের জন্য আলামত রাখতে নির্দেশনা দিয়েছি। তার শরীরে আঘাতে চিহ্ন নেই। রাতেই প্রধান অভিযুক্ত তানভীর ইফতেফার দিহানকে একমাত্র আসামি করে মেয়েটির বাবা ধর্ষণ ও হত্যার মামলা দায়ের করেছেন রাজধানীর কলাবাগান থানায়। শুক্রবার একমাত্র আসামি দিহানকে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে তুলে রিমান্ড চাইবে পুলিশ।

ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রী রাজধানীর ধানমণ্ডির মাস্টারমাইন্ড স্কুলের ‘ও’ লেভেলের শিক্ষার্থী। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে গ্রুপ স্টাডির কথা বলে কলাবাগানের ডলফিন গলির বাসায় নিয়ে যায় অভিযুক্ত ওই কলেজ ছাত্র। মামলায় বলা হয়েছে, ধর্ষণের পর রক্তক্ষরণ হলে নির্যাতিতাকে আনোয়ার খান মর্ডান হাসপাতালে নিয়ে যান অভিযুক্ত নিজেই। এর মধ্যে নির্যাতিতার মাকে ফোন করে মেয়ের অসুস্থতার কথা জানায় সে। হাসপাতালে আসার আগেই মেয়ের মৃত্যুর খবর পান মা।

Tags:

আপনার মতামত জানানঃ