ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  ক্রাইম   »   যুবতীকে গাছে বেঁধে নির্যাতনকারী কথিত যুবলীগ নেতা জেল হাজতে

যুবতীকে গাছে বেঁধে নির্যাতনকারী কথিত যুবলীগ নেতা জেল হাজতে

September 23, 2016 - 4:47 PM

মাছুম বিল্লাহ ,ভোলা ।
ভোলার চরফ্যাশনে যুবতীকে সুপারি গাছের সাথে বেঁধে নির্যাতনের প্রধান আসামী কথিত যুবলীগ নেতা কামরুল ইসলাম কাজলকে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে আদালত। বৃহস্পতিবার আদালতে জামিন চেয়ে আবেদন করলে আদালত কথিত যুবলীগ নেতা কাজলের জামিন না মন্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন। এঘটনায় বাদীর পরিবার ও এলাকাবাসীর মাঝে আনন্দ বিরাজ করছে। জানা গেছে, চরফ্যাশন উপজেলার নুরাবাদ ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের নজির মাঝির হাট এলাকার নজির মাঝির ছেলে উপজেলা যুবলীগের সদস্য মো. কামরুল ইসলাম কাজলের (৩০) সাথে প্রায় এক বছর ধরে পাশ্ববর্তী এলাকার মো. মনিরের স্ত্রী নুর নাহারের (২৬) পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। বিষয়টি স্বামী মনির টের পেলে নাহারকে তার বাবার বাড়িতে রেখে আসেন। এ সুযোগে লম্পট কাজল, নুর নাহারকে বিয়ে করার আশ্বাস দিয়ে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। এলাকায় এ সম্পর্কে বিষয়টা জানাজানি হয়ে গেলে গত ৪ মে সকালে নাহারকে বাড়িতে নিয়ে সুপারি গাছের সাথে বেঁধে নির্যাতন চালায় কথিত যুবলীগ নেতা কাজল ও তার পরিবারের লোকজন। এঘটনায় ওই দিন রাতে চরফ্যাশন থানায় নুরনাহার বাদী হয়ে ৭ জনকে বিবাদী করে মামলা দায়ের করেন। এর পর পুলিশ ২ জনকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠালেও রহস্যজনক কারণে প্রধান আসামী কথিত যুবলীগ নেতা কাজলসহ বাকি ৫ আসামিকে পুলিশ গ্রেফতার করেনি। অবশেষে পুলিশ তদন্ত সাপেক্ষে বাদীর পক্ষে রিপোর্ট প্রধান করেন। বৃহস্পতিবার আদালতে জামিন চেয়ে আবেদন করলে আদালত কথিত যুবলীগ নেতা কামরুল ইসলাম কাজলের জামিন না মন্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন। উল্লেখ্য, কথিত যুবলীগ নেতা কাজল একই এলাকার তেতুঁলিয়া নদীর বউ বাজার নামক মাছ ঘাট ও গাছির খাল নামক ঘাটে জেলের কাছ থেকে চাঁদাবাজী, জমি দখল করে নিজের নামে কাজল বাজার নির্মাণ, ভেজাল প্রেক্টল বিক্রয়, চুরাই মোটসাইকেল ক্রয় বিক্রয়, প্রতারণা,নারী কেলেংকারী সহ নানান অপরাধ মূলক কর্মকা- চালিয়ে যাতেন বলে অভিযোগ করেন এলাকাবাসী।

আপনার মতামত জানানঃ