ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  ক্রাইম   »   মোংলায় জোরপূর্বক বিধবার সম্পত্তি দখলের চেষ্টা, আহত ৮

মোংলায় জোরপূর্বক বিধবার সম্পত্তি দখলের চেষ্টা, আহত ৮

নভেম্বর ৭, ২০২০ - ৮:২৪ অপরাহ্ণ

মোংলায় এক বিধবা নারীর সম্পতি দখলের সময় বাধায় দেয়ায় সন্ত্রাসীদের হামলায় কমপক্ষে ৮ জন আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে বৃদ্ধা একনারীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শনিবার (৭ নভেম্বর) দুপুরে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, মোংলা পৌর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মৃত. মালেক খানের বিধবা মেয়ে ফাতেমা বেগম ও তার বৃদ্ধা মা এবং ছেলেমেয়েকে নিয়ে স্বামীর ভিটায় বসবাস করে আসছেন। দীর্ঘদিন থেকে এ সম্পত্তির ওপর সন্ত্রাসীদের দৃষ্টি পড়ে।

ফাতেমা বেগম সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, স্বামীর রেখে যাওয়া সম্পত্তির ওপর একটি মহল দীর্ঘদিন ধরে দখলের চেষ্টা করে আসছে। দুপুরে সম্পত্তি দখল করার উদ্দেশ্যেই পরিকল্পিতভাবে এ হামলা ও তাণ্ডব চালায় তারা। সন্ত্রাসী মহলটি এখন হুমকি দিচ্ছে এ নিয়ে যেন বাড়িবাড়ি না করা হয়। জানমালের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি আমরা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সাবেক পৌর কমিশনার সরোয়ার হোসেন ও পৌর যুবদল নেতা শহিদুল গাজীর নেতৃত্বে শনিবার বেলা ১টার দিকে ৮/১০ জনের একদল সন্ত্রাসী ধারালো অস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে মোংলা পৌর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মৃত. মালেক খানের বিধবা মেয়ে ফাতেমা বেগম (৪০) এর বসত বাড়িতে অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই বাড়ির সামনের ওই বিধবা নারীর মালিকানাধীন দোকানঘর জবরদখল করে নেয় তারা। এ সময় সন্ত্রাসীরা বাড়ির মধ্যে প্রবেশ করেও বেশ ভাঙচুর চালায়। একপর্যায়ে সন্ত্রাসীদের তাণ্ডবে ওই নারীর মেয়ে ও তার বৃদ্ধা মা আনোয়ারা বেগম, অপর আত্মীয় লিলি আক্তার (৩৫), সাগরিকা (৪০) নামে একনারীসহ পরিবারের অন্তত ৭/৮ জন সদস্য আহত হন। তাদের মধ্যে মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী আনোয়ারা বেগম (৭০) গুরুতর আহত হন। তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

মোংলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা-ওসি ইকবাল বাহার চৌধুরী জানান, খবর পাওয়া মাত্রই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিন্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ দিলে আইনানুগ কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপনার মতামত জানানঃ