ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  আইন-আদালত   »   মিথ্যা সাক্ষ্য-প্রমাণ উপস্থাপন করে এই সাজা দেওয়া হয়েছে

মিথ্যা সাক্ষ্য-প্রমাণ উপস্থাপন করে এই সাজা দেওয়া হয়েছে

August 30, 2016 - 11:17 AM

নিজস্ব প্রতিবেদক : অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেছেন, ‘মিথ্যা অভিযোগে, মিথ্যা সাক্ষ্য-প্রমাণ উপস্থাপন করে এই সাজা দেওয়া হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘ভবিষ্যৎ প্রজন্ম বিচার-বিবেচনা করবে এটা সঠিক বিচার হয়েছে কি না। সারা বিশ্বের আইনজীবী ও আদালত অঙ্গণে যারা আছেন, তারা বিবেচনা করবেন রায় সঠিক কি না।’

মঙ্গলবার আপিল বিভাগে মীর কাসেমের রিভিউ আবেদন খারিজ হওয়ার পর এক প্রতিক্রিয়ায় সাংবাদিকদের কাছে তিনি এসব কথা বলেন।

খন্দকার মাহবুব বলেন, ‘যেহেতু আপিল বিভাগ সাজা দিয়েছেন, আমার পক্ষে এটা সঠিক হয়নি- এ কথা বলা সম্ভব নয়। যেহেতু আইনের বিধানমতে সর্বোচ্চ আদালত যেটা করেন সেটাই ন্যায়বিচার। পৃথিবীর আনাচকানাচে যারা আছেন, আইনজ্ঞ আছেন, আইন বিশারদ আছেন। তারা সাক্ষ্য-প্রমাণ পরিচালনা করে কী মন্তব্য করেন, সেটা দেখার অপেক্ষায় আমি আছি।’

খন্দকার মাহবুব বলেন, ‘তদন্ত কর্মকর্তার কাছে জবানবন্দিতে একজন সাক্ষীও মীর কাসেম আলীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দেয়নি। পরে এসব সাক্ষীকে সেফ হোমে নিয়ে শিখিয়ে রিহার্সেল দিয়ে আদালতে উপস্থাপন করা হয়েছে। সেই সাক্ষ্যর ভিত্তিতে আদালত মীর কাসেমকে সাজা দিয়েছেন।’

তিনি বলেন, ‘আপিল বিভাগ রায় দিয়েছেন। আমার পক্ষে বলা সম্ভব নয়- বিচার সঠিক হয়নি। আপিল বিভাগের রায় ন্যায়বিচার হয়েছে- এটা মানতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘আপনারা দেখেছেন, রায়ের পর ফাঁসির দড়ি নিয়ে ঢোল পেটানো হচ্ছে এবং মিষ্টি বিতরণ করা হচ্ছে। আমি মনে করি, এই ধরনের আচরণ অত্যন্ত দুঃখজনক এবং ভবিষ্যতে যদি বাতাস পাল্টে যায় তবে এই ধরনের আচরণের হয়তো বা পুনরাবৃত্তি হতে পারে।’

আপনার মতামত জানানঃ