ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  জাতীয়   »   মাস্ক পরা নিশ্চিতে মার্কেট শপিং মলে অভিযান চালানোর নির্দেশ

মাস্ক পরা নিশ্চিতে মার্কেট শপিং মলে অভিযান চালানোর নির্দেশ

সেপ্টেম্বর ২১, ২০২০ - ৭:৫৯ অপরাহ্ণ

কোভিড-১৯ মোকাবিলায় সরকারি নির্দেশনা থাকলেও মাস্ক পরতে জনসাধারণের অনীহার প্রেক্ষাপটে এবার মার্কেট শপিং মলে অভিযান চালানোর নির্দেশ দেয়ার কথা জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বৈঠক শেষে ব্রিফিং এ কথা জানিয়েছেন তিনি।

তিনি জানান, সরকার প্রধানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকেও করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ওয়েভ নিয়ে আলোচনা হয়েছে। মন্ত্রিসভার নিয়মিত এই সভায় গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী এবং মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে অন্যান্য সদস্যরা যোগ দেন।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘অনেক দেশেই, বিশেষ করে শীত প্রধান দেশে দ্বিতীয় দফায় সংক্রমণ হচ্ছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নভেম্বরের শেষ থেকে সেকেন্ড ওয়েভ আসে কিনা, সেই প্রিপারেশন রাখতে হবে। ম্যাসিভ প্রিপারেশন যেন আমাদের থাকে।’

সরকারপ্রধানকে উদ্ধৃত করে মন্ত্রিপরিষদ সচিব সাংবাদিকদের বলেন, করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ওয়েভ নিয়ে সবার যেন প্রস্তুতি থাকে সে ব্যাপারে সতর্ক করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি জানান, ‘প্রধানমন্ত্রী বলে দিয়েছেন সেকেন্ড ওয়েভ যদি আসে, আমাদের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে যদি সচেতন হই। তাহলে আমাদের জন্য এটা সুবিধা হবে। পাশাপাশি উনি নির্দেশনা দিয়েছেন অক্টোবরের শেষ বা নভেম্বরের মাঝামাঝি থেকে ঠাণ্ডার প্রকোপটা বাড়তে পারে। সেক্ষেত্রে আমাদের লোকজনের নিউমোনিয়া, সর্দি, জ্বর বা অ্যাজমাটিক সমস্যা থাকে তাই সবাইকে প্রস্তুতি নিতে বলেছেন। এসবে আক্রান্ত হলে যেন চিকিৎসা করান। কোভিডের সেকেন্ড ওয়েভ এলে মাঠ পর্যায়ে সেটাকে কীভাবে মোকাবিলা করতে হবে সেটার জন্য এখন থেকেই প্রস্তুতি নিতে বলেছেন।’

করোনার দ্বিতীয় ওয়েভ প্রতিহত করতে মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা আহ্বান করা হয়েছে জানিয়ে খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, পরে আরো বিস্তারিত কর্মসূচি নেয়া হবে। দ্বিতীয় ওয়েভ আসার আগে সরকার মাস্ক পরা নিশ্চিত করতে সরকার গুরুত্ব দিচ্ছে বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

তিনি বলেন, ‘মাস্ক ব্যবহার করা দরকার। সবাই মিলে ঠিকভাবে মাস্ক যদি ব্যবহার না করি তাহলে কিন্তু মুশকিল! কারণ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দুই তরফ থেকে যদি মাস্ক পরা থাকে তাহলে ৯৫-৯৮ শতাংশ নিরাপদ। আর এক তরফ থেকে মাস্ক থাকলে ৬০-৬৫ শতাংশ নিরাপদ। মাস্ক যদি না পরে তাহলে কিন্তু কোনো কিছুই সফল হবে না। এজন্য সবাইকে উদ্বুদ্ধ করতে হবে।’

সম্প্রতি একটি বিপণিবিতানে নিজের অভিজ্ঞতা তুলে ধরে সচিব বলেন, ‘আমি সেখানে বেশি লোককে মাস্ক পরতে দেখিনি। পরে আমরা নির্দেশনা দিয়েছি আমরা ক্রস চইক করবো যে কোনো দিন, সে মার্কেটে যদি সবাইকে মাস্ক পরা না দেখি তাহলে উই উইল টেক অ্যাকশন।’

Tags:

আপনার মতামত জানানঃ