ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  সারা বাংলা   »   মানিকগঞ্জ পৌর নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী সুলতানুল আযম খান আপেলের নির্বাচনী জনসভায় জনতার ঢল

মানিকগঞ্জ পৌর নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী সুলতানুল আযম খান আপেলের নির্বাচনী জনসভায় জনতার ঢল

অক্টোবর ২৫, ২০২০ - ৩:০২ অপরাহ্ণ

আমিনুল ইসলাম, জেলা প্রতিনিধি, মানিকগঞ্জঃ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্নের ডিজিটাল বাংলাদেশে গড়ার অংশ হিসেবে মানিকগঞ্জ পৌরসভাকে একটি মডেল পৌরসভায় রূপান্তন করার অঙ্গীকার নিয়ে আনাচে-কানাচে সভা-সমাবেশ ও গন-সংযোগ অব্যাহত রেখেছেন জেলা অ’লীগের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক বর্ষীয়ান রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব সর্বজনবিদিত জনপ্রিয় নেতা আলহাজ্ব আ,ফ,ম সুলতানুল আযম খান আপেল।

পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ডেও দক্ষিন-পশ্চিম বান্দুটিয়া গ্রামে আয়োজিত নির্বাচনী জনসভায় প্রবল বৃষ্টি উপেক্ষা করে হাজারো নারী-পুরুষ সহ অগনিত জনতার ঢল নামে। রাত ১১টা পর্যন্ত জনসভা চলাকালে পৌর এলাকার বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত জনগনের মুখে একটাই শ্লোগান ছিল আপেল ’ভাই এগিয়ে চলো আমরা তোমার সাথে আছি’ । জনগনের শতস্ফুত অংশগ্রহনে বান্দুটিয়ার আম বাগহŸাড়ী এলাকাটি জনসমুদ্রে পরিনত হয়। জনসভায় মানিকগঞ্জের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ বলেন, আমরা অনেক মেয়র দেখেছি। কিন্তু কেউ পৌর সভার উন্নয়নের কথা ভাবেনি। তারা ভেবেছে নিজের ভাগ্য উন্নয়নের কথা। তাই ৫০ বছরেও এই পৌরসভার কার্যত কোন উন্নয়ন হয়নি। এবার আমরা আপেল ভাইয়ের মত একজন বিচক্ষন, ধর্মভীরু, সুদক্ষ,সৎ, আধুনিক, রুচিশীল, যোগ্য ও জনবান্ধব ব্যক্তিত্বকে পৌর মেয়র হিসেবে দেখতে চাই। বৈশাথী পরিষদের সহ-সভাপতি প্রবীন রাজনীতিবিদ আব্দুল মান্নান তার স্বাগত বক্তব্যে বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী যে সকল চেয়ারম্যান-মেয়র এই পৌরসভার প্রতিনিধিত্ব করেছেন তাদের চেয়ে সব দিক দিয়ে আপেল ভাই যোগ্য। তিনি মানিকগঞ্জে হংকার স্বাস্থ্য মন্ত্রীর অত্যন্ত আস্থাভাজন ব্যক্তি। তিনি পৌর মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হলে বীর মুক্তিযোদ্ধা থেকে শুরু করে সর্বস্তরের জনগন উপকৃত হবে। তার দলীয় মনোনয়ন পেতে মানিকগঞ্জের আপামর জনগন সহযোগিতা করবে। যে কোন উপায়ে আমরা তার দলীয় মনোনয়ন নিশ্চিত করবো ইনশাআল্লাহ্।

বৃহস্পতিবার সন্ধায় দক্ষিন-পশ্চিম বান্দুটিয়া গ্রাম কমিটির সভাপতি প্রফেসর মোঃ মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে ও জেলা নাগরিক ও পেশাজীবি ঐক্য পরিষদের মহাসচিব অলিয়ার রহমানের সনচালনায় অনুষ্টিত বিশাল নির্বাচনী জনসভায় প্রদান অতিথির বক্তব্যে আলহাজ্ব সুলতানুল আযম খান আপেল জনগনের ্উদ্দেশ্যে বলেন, মানিকগঞ্জ পৌরসভাটি ১ম শ্রেনীর মর্যাদায় উন্নীত হলেও এখনো বাশেঁর সাকো দিয়ে জনগনকে চলাচল করতে হয়। এখনো রাস্তাঘাট বেহাল অবস্থায় পড়ে আছে। নাগরিক সুবিধা নাই বললেই চলে। শুধু নাগরিকদের ট্যাক্সের বোঝা ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে। সত্যি দুঃখের বিষয়। তিনি বলেন, আমাকে আপনারা একবার সেবা করা সুযোগ দেন। আমি এই পৌরসভাকে একটি আধুনিক ডিজিটাল সেবাধর্মী প্রতিষ্টানে পরিনত করে নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করবো। যা হবে গোটা দেশের জন্য একটি মডেল পৌরসভা।জেলা ডায়বেটিক সমিতির সভাপতি ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাবেক সাধারন সম্পাদ আপেল বলেন, অতীতের মেয়রগন সীমাহীন দুর্নীতি-অনিয়মের মাধ্যমে টাকার পাহাড় গড়েছে। দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিশাল বিশাল মার্কেট বানিয়েছে। তাদের আত্মীয়-স্বজনেরাও পৌরসভা লুটে-পুটে টাকার টিলা বানিয়েছে। স্বজনপ্রীতি দুর্নীতি-অনিয়ম স্বেচ্চাচারীরা ও লুটতরাজের ফলে পৌরসভাটি আজ অসহায় প্রতিচ্ছবি হয়ে মুর্তিমান। আমি মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হলে প্রথমে নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করবো। অতীতের সকল ময়লা পরিস্কার করে নয়নাভিরাম শোভামন্ডিত বিশ্বমানের পৌরসভায় রুপান্তরিক করবো। ট্যাক্স মওসুফ ফ্রি এসি অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস, ফ্রি ইন্টারন্টে সার্ভিস, ফ্রি লাশবাহী গাড়ী সহ অবকাঠানো উন্য়নের সততার সাথে কাজ করার দৃঢ় প্রত্যয়ে আপেল বলেন, আপনারা পাশে থাকলে নিগৃহীত, জঙ্গলময় ও ময়লার ভাগারের পরিবর্তে এই পৌরসভাটি হবে আগামী প্রজন্মের জন্য বাসযোগ্য আধুনিক শহর। যা হবে সন্ত্রাস,দুর্নীতি ও মাদকমুক্ত শহরে দৃশ্যমান প্রতিচ্ছবি।

গভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পৌর আ’লীগের সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম,জেলা ওলামা মাশায়েক পরিষদের মহাসচিব ও জেলা ইটভাটা মালিক সমিতির সভাপতি বশির রেজা, জাগির ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জাকির হোসেন, কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সদস্য শিহাব উদ্দিন, পৌর আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাশেম আলী,কেন্দ্রীয় মহিলা কমিটির সভাপতি শ্রভ্্রা খানমজলিশ, সাধারন সম্পাদক শিরিন আক্তার সোহাগ,সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ারা বেগম, পৌর যুবলীগ নেতা মশিউর রহমান, সরকারী দেবেন্দ্র কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি নাদিম হোসেন, পৌর ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক অভিজিত সরকার,জেলা তরুনলীগের সভাপতি ফরায়েজী এমএম এ মামুন, সাধারন সম্পাদক আরিফ হোসেন,মহিলা সম্পাদক শারমিন শোভা প্রমুখ।

আপনার মতামত জানানঃ