ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  অর্থনীতিসারা বাংলা   »   বুধবার ঢুকছে গেটপাশ পাওয়া পেঁয়াজের ট্রাকগুলো

বুধবার ঢুকছে গেটপাশ পাওয়া পেঁয়াজের ট্রাকগুলো

সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২০ - ৫:৪১ অপরাহ্ণ

ভারতের পেট্রাপোল বন্দরে নিষেধাজ্ঞার আগে গেটপাশ হয়েছিল এমন ট্রাক বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বেনাপোল বন্দর দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করবে বলে জানা গেছে।

বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) যেকোনো সময় কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষ হলেই এসব পেঁয়াজবাহী ট্রাক বেনাপোল বন্দরে প্রবেশ করবে বলে নিশ্চিত করেন বেনাপোল কাস্টমস হাউজের কমিশনার আজিজুর রহমান।

আমদানিকারক খুলনার হামিদ এন্টারপ্রাইজের প্রতিনিধি সরোয়ার জনি জানান, তিন দিন ধরে পেঁয়াজের ট্রাক ওপারে আটকে থাকায় নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়েছে। আমদানির অপেক্ষায় ভারতের পেট্রাপোল বন্দর এলাকার বিভিন্ন পার্কিংয়ে প্রায় শতাধিক ট্রাক পেঁয়াজ নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে। গেটপাশ করা সামান্য কয়েক ট্রাক পণ্যের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হলেও গেটপাশ ছাড়া দাঁড়িয়ে থাকা অন্য ট্রাকের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। ভারতীয় রফতানিকারকরা তাকে জানিয়েছেন এসব পণ্যের রফতানি মূল্য পূর্বের চেয়ে প্রায় তিনগুণ বৃদ্ধি করে আমদানির সুযোগ দেয়া হতে পারে। তবে বর্ধিত মূল্যে পেঁয়াজ আমদানি কঠিন হয়ে দাঁড়াবে।

বেনাপোল আমদানি রফতানি সমিতির সহ-সভাপতি আমিনুল হক জানান, বেনাপোল বন্দর দিয়ে কমপক্ষে ৩০ জন আমদানিকারক নিয়মিত ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি করেন। নিষেধাজ্ঞার আগে এসব আমদানিকারকরা প্রায় ৩০ হাজার মেট্রিক টন পেঁয়াজের এলছি খুলে রেখেছেন। ইতিমধ্যে অনেক এলসির অনেক পেঁয়াজ কেনা হয়েছে।

তিনি দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, আমরা সংকটের মধ্যে ভারতকে ইলিশ দিলেও তারা পরপর দুই বছর একই ভাবে পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করেছে। এখন আমদানি স্বাভাবিক করতে হলে রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে সমাধান ছাড়া সম্ভব না। বন্ধু দেশের কাছ থেকে আমরা এমনটা আশা করিনি।

বেনাপোল কাস্টমস কমিশনার আজিজুর রহমান বুধবার বিকালে সাড়ে ৩টায় জানান, ভারতীয়দের মাধ্যমে তিনি জানতে পেরেছেন বেনাপোল বন্দরে প্রবেশের অপেক্ষায় ওপারে যে সমস্ত পেঁয়াজের ট্রাক দাঁড়িয়ে আছে তার মধ্যে মাত্র চার ট্রাকের গেটপাশ সম্পূর্ণের খবর তিনি শুনেছেন। এগুলো বুধবার যেকোনো সময় ঢুকবে। তবে অন্যান্য ট্রাক ও পেঁয়াজের বিষয়ে তার কাছে কোনো তথ্য নাই।

সর্বশেষ গত ১৪ সেপ্টেম্বর সিলেটের আমদানিকারক সুজন এন্টারপ্রাইজ ভারত থেকে ২ হাজার ৯৭৩ ডলার মূল্যে ২৫ মেট্রিক টন ২০০ কেজি পেঁয়াজ বেনাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি করে। এতে প্রতিকেজি পেঁয়াজের আমদানি খরচ পড়েছে বাংলা টাকায় সর্বোচ্চ ১৫ টাকা। কিন্তু বাজার নিয়ন্ত্রণের অভাবে বর্তমানে এ পেঁয়াজ দেশে খোলা বাজারে বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৭০ থেকে ৮০ টাকায়।

Tags:

আপনার মতামত জানানঃ