ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  খেলাধুলা   »   বিশ্বকাপের পর থেকেই বদলে গেছে বাংলাদেশ দলের চেহারা

বিশ্বকাপের পর থেকেই বদলে গেছে বাংলাদেশ দলের চেহারা

December 9, 2016 - 9:20 AM

ক্রীড়া প্রতিবেদক : অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে ২০১৫ বিশ্বকাপের পর থেকেই বদলে গেছে বাংলাদেশ দলের চেহারা।

প্রথমবার বিশ্বকাপ কোয়ার্টার ফাইনালে খেলার পর তিনটি বড় দলের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জয়। বিশ্বকাপের আগে-পরে মিলিয়ে টানা ছয়টি ওয়ানডে সিরিজ জয়।

সবশেষ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে হারা সিরিজেও একটি ওয়ানডে জয়। ইংলিশদের হারিয়েছে টেস্ট ম্যাচেও। তবে বাংলাদেশের এসব সাফল্য ঘরের মাঠে। এবার বাংলাদেশের লক্ষ্য দেশের বাইরেও সাফল্যর ফোয়ারা ছোটানো। সে লক্ষ্যে বাংলাদেশের প্রথম পরীক্ষা নিউজিল্যান্ডে। নিউজিল্যান্ড সিরিজে তাই ভিন্ন চ্যালেঞ্জ দেখেছেন বাংলাদেশের সীমিত ওভারের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।

নিউজিল্যান্ড সিরিজের জন্য অস্ট্রেলিয়ার প্রস্তুতি ক্যাম্পে যোগ দিতে এরই মধ্যে ২২ জনের ১৩ জন সিডনিতে চলে গেছেন। বাকিরা যাবেন বিপিএলের ফাইনালের পর শনিবার। এর মধ্যে রয়েছেন মাশরাফিও। শুক্রবার সংবাদ সম্মেলনে নিউজিল্যান্ড সিরিজ নিয়ে কথা বললেন অধিনায়ক।

শেষ দুই বছরে ঘরের মাঠে বেশিরভাগ ম্যাচ জয়ের পর এবার নিউজিল্যান্ড সিরিজকে ভিন্ন চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখছেন মাশরাফি, ‘সত্যিকার অর্থে, আমরা শেষ বছর বেশিরভাগ ম্যাচই হোমে খেলেছি। বেশিরভাগ ম্যাচও আমরা জিতেছি। আমরা দেড়-দুই বছর আগে যে টার্গেট করেছি, হোমে কমপক্ষে ৮০ ভাগ ম্যাচ জেতা। আল্লাহর রহমতে আমরা সে জায়গায় সফলতা পেয়েছি। এখন ভিন্ন চ্যালেঞ্জ যে হোমের বাইরে গিয়ে খেলা। আপনারা জানেন যে এটা চ্যালেঞ্জিং। অনেক প্রতিষ্ঠিত দলের জন্যও এটা চ্যালেঞ্জিং। সেক্ষেত্রে আমাদের জন্য আরো বেশি চ্যালেঞ্জিং।’

অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের আবহাওয়া পুরোপুরি ভিন্ন। এটিকেও তাই চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখছেন মাশরাফি। তবে ঘরের মাঠে সাফল্যের আত্মবিশ্বাস কাজে লাগাতে পারলে সেখানেও সাফল্য ধরা দেবে বলে বিশ্বাস অধিনায়কের, ‘নিউজিল্যান্ডের আবহাওয়া অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকার থেকে ভিন্ন। আমি মনে করি একটা কঠিন চ্যালেঞ্জ সামনে আসছে। আমরা আত্মবিশ্বাস নিয়ে যেভাবে খেলেছি, আমরা মোমেন্টামটা ওখানে নিতে পারি, ভালো খেলার স্মৃতিগুলো যদি ওখানে নিতে পারি, জাতীয় দলে যেভাবে খেলেছি ওই আত্মবিশ্বাস নিয়ে যদি খেলতে পারি তাহলে মনে হয় ভালো ফল আসবে। ভিন্ন কন্ডিশন হলেও আশা করছি ভালো হবে।’

নিউজিল্যান্ডকে এ পর্যন্ত আটটি ওয়ানডেতে হারিয়েছে বাংলাদেশ। তবে সবগুলোই ঘরের মাঠে। গত বিশ্বকাপে হ্যামিল্টনে মাহমুদউল্লাহর সেঞ্চুরির ম্যাচে নিউজিল্যান্ডকে প্রায় হারিয়েই দিচ্ছিল বাংলাদেশ। কিন্তু শেষ মুহূর্তে পরাজয় সঙ্গী করতে হয়। অনেক সময় বড় দলগুলোরও দেশের বাইরে গিয়ে জেতা বেশ কঠিন হয়ে যায়। তারপরও বেশিরভাগ ম্যাচ জেতার আশা মাশরাফির।

তবে এটা যে বেশ কঠিন সেটাও জানেন অধিনায়ক, ‘আসলে প্রতিষ্ঠিত দলগুলোরও বাইরে জিততে কঠিন হয়ে যায়। নিউজিল্যান্ড এখানে যখন আসবে তখন অবশ্যই এটা তাদের জন্য কঠিন। আমরা যখন যাব তখন আমাদের জন্য কঠিন। সব কিছুই আলাদা। তারপরও আমরা চাইব বেশির ভাগ ম্যাচ জিততে। তবে এটা বলাও যেমন কঠিন করাও ততটাই কঠিন।’

২০১৪ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের পর এই প্রথম বিদেশের মাটিতে দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। অস্ট্রেলিয়ায় প্রস্তুতি ক্যাম্প শেষ করে ১৮ ডিসেম্বরে নিউজিল্যান্ডে উড়াল দেবে বাংলাদেশ দল। ২৬ ডিসেম্বর ক্রাইস্টচার্চে ওয়ানডে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে সিরিজ।

আপনার মতামত জানানঃ