ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  আইন-আদালত   »   বাড্ডায় ফোর মার্ডারের ‘মূল হোতারসহ’ ৬ জন রিমান্ডে

বাড্ডায় ফোর মার্ডারের ‘মূল হোতারসহ’ ৬ জন রিমান্ডে

August 28, 2016 - 4:49 PM

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর বাড্ডায় ফোর মার্ডারের ‘মূল পরিকল্পনাকারীসহ’ ছয়জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

 

রোববার শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম ইমদাদুল হক রিমান্ডের আদেশ দেন।

 

রিমান্ডকৃতরা হলেন- হারুনুর রশিদ জুয়েল, মোজাহিদুল ইসলাম নাহিদ, সাফায়েত উল্লাহ সোহাগ, রাহাত হোনের কাব্য, ইকবাল আহম্মেদ রনি এবং শাহ পরান হোসেন রাজু।

 

এদের মধ্যে জুয়েলকে হত্যা মামলায় তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। তার দশ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক ফজলুল হক।

 

অস্ত্র মামলায় হারুনুর রশীদ জুয়েল এবং মোজাহিদুল ইসলাম নাহিদের তিন দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত। এই মামলায় তাদের দশ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক ওবায়দুর রহমান।

 

অন্য আরেক অস্ত্র মামলায় ওই ছয় আসামির প্রত্যেককে তিন দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত। এই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক এ কে এম কাউসার তাদের দশ দিনের রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেন।

 

রিমান্ড আবেদনে উল্লেখ করা হয়- মামলার অন্যান্য আসামিদের শনাক্ত ও গ্রেপ্তারসহ মামলার প্রকৃত রহস্য উদঘাটনের লক্ষে এবং ঘটনায় ব্যবহৃত আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধারের লক্ষে আসামিদেরকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের প্রয়োজন। শুনানি শেষে আদালত তাদেরকে রিমান্ডের ওই আদেশ দেন।

 

গত শনিবার রাতে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।

 

২০১৫ সালের ১৩ আগস্ট বাড্ডার আদর্শনগর পানির পাম্প এলাকায় রাতে দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হন বাড্ডার ৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শামসুদ্দিন মোল্লা ও ব্যবসায়ী ফিরোজ আহমেদ মানিক। একই ঘটনায় গুলিবিদ্ধ ঢাকা মহানগর উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সাহিত্য ও সাংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান গামা চিকিৎসাধীন অবস্থায় পরদিন মারা যান। সর্বশেষ ২৩ আগস্ট রাতে মৃত্যু হয় গ্যারেজ মালিক ও স্থানীয় যুবলীগ নেতা আবদুস সালামের।

 

এ ঘটনায় মাহবুবুরের বাবা মতিউর রহমান ১৪ আগস্ট বাড্ডা থানায় ১০-১২ জন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে আসামি করে হত্যা মামলা করেন।

আপনার মতামত জানানঃ