ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  বিনোদন   »   বলিউড অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন

বলিউড অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন

September 5, 2016 - 8:36 AM

বিনোদন ডেস্ক : বলিউড অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন। ব্যক্তিগত জীবনে তার রয়েছে দুই নাতনি। একজন নিখিল-শ্বেতা নন্দার মেয়ে নব্য নাভেলী নন্দা এবং অন্যজন অভিষেক-ঐশ্বরিয়ার মেয়ে আরাধ্য।

সম্প্রতি তার দুই নাতনিকে উদ্দেশ করে একটি চিঠি লিখেছেন বিগ বি। চিঠির মূল বিষয়বস্তু ভারতের সমাজের লিঙ্গবৈষম্য এবং নারীদের প্রতি সহিংসতা বৃদ্ধি।

অমিতাভ তার দুই নাতনিকে বলেছেন, ‘তোমরা নিজেদের বিচক্ষণতা দিয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। মানুষ কী বলছে তা নিয়ে মাথা ঘামাবে না।’

এ অভিনেতা মনে করেন, নারীদের বর্তমানে যে চরম পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে হয়, এতে নব্য এবং আরাধ্যর নামের সঙ্গে যে ‘পদবি’ রয়েছে, তা তাদের রক্ষা করতে পারবে না।

তিনি লিখেছেন, পৃথিবীর এই কঠিন পরিস্থিতি তার নাতনিদের মতো মেয়েদের দ্বারাই পরিবর্তন সম্ভব। আর এটি যদি হয় তাহলে তিনি নব্য ও আরাধ্যর দাদা/নানা হিসেবে নিজেকে পরিচয় দিতে গর্ব বোধ করবেন।

চিঠিটি লেখার কারণ হিসেবে মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘আমার ইচ্ছে হয়েছে তাই আমি চিঠিটা লিখেছি।’

নিচে অমিতাভ বচ্চনের লেখা চিঠিটি তুলে ধরা হলো :

‘তোমরা দুজনই তোমাদের ছোট কাঁধে খুব মূল্যবান পদবি বহন করছ। আরাধ্য-তোমার প্রপিতামহ ড. হরিবংশ বচ্চন এবং নব্য, তোমার প্রপিতামহ শ্রী এইচ পি নন্দা।

তোমরা দুজনেরই পরদাদার কাছ থেকে পদবি পেয়েছ। যার কারণে বর্তমান যশ, খ্যাতি এবং পরিচিতি তোমরা উপভোগ করছ। তোমরা দুজনই হয়তো বচ্চন অথবা নন্দা কিন্তু একই সঙ্গে তোমরা নারী। যেহেতু তোমরা নারী তাই তাদের চিন্তাধারা, সীমাবদ্ধতা তোমাদের ওপর চাপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করবে।

তারা তোমাদের বলবে- কীভাবে পোশাক পরতে হবে, কার সঙ্গে কীভাবে ব্যবহার করতে হবে, কাদের সঙ্গে তুমি দেখা করতে পারবে এবং কোথায় যেতে পারবে। মানুষের বিচারবুদ্ধি মতো চলো না। তোমাদের নিজেদের বিচক্ষণতা দিয়ে সিদ্ধান্ত নাও।

তোমার স্কার্টের মাপ দিয়ে তোমার চরিত্রের বিচার কাউকে করতে দিয়ো না। তোমার বন্ধু কে হবে তার সিদ্ধান্ত অন্যকে নিতে দিয়ো না। তোমার বন্ধু কে হবে তার সিদ্ধান্ত নিজে নাও।

অন্য কোনো কারণে বিয়ে করো না বরং তুমি বিয়ে করতে চাও এ জন্য বিয়ে কর। মানুষ কথা বলবেই। তারা হয়তো অনেক বাজে কথা বলবে। তার মানে এই নয় তোমাকে সবার কথা শুনতে হবে। মানুষ কী বলছে এটা কখনো ভাববে না। কারণ দিন শেষে তোমার কাজের ফল তোমাকেই ভোগ করতে হবে। সুতরাং তোমার সিদ্ধান্ত অন্য কাউকে নিতে দিয়ো না।

নব্য-তোমার নাম এবং পদবি তোমাকে কঠিন পরিস্থিতি থেকে রক্ষা করবে না, কারণ তুমি একজন নারী।

আরাধ্য- তুমি যখন এই চিঠিটি পাবে এবং এর অর্থ বুঝবে হয়তো তখন আমি থাকব না। কিন্তু আমি মনে করি, আমি আজ যা বলছি, সেটা তখনো প্রাসঙ্গিক থাকবে।

এই পৃথিবী হয়তো নারীদের জন্য খুব কঠিন একটি জায়গা। কিন্তু আমি বিশ্বাস করি তোমাদের মতো মেয়েরাই এটিকে পরিবর্তন করতে পারে। নিজের পছন্দমতো কাজ করা, নিজেদের সীমাবদ্ধতা তৈরি করা এবং মানুষের সমালোচনার ঊর্ধ্বে কাজ করা খুব সহজ নয়। কিন্তু তুমি বিশ্বের প্রতিটি নারীর জন্য দৃষ্টান্ত তৈরি করতে পার।

এই কাজগুলো কর তাহলে আমি যা করেছি তারচেয়ে অনেক বেশি কিছু তোমরা করতে পারবে। এবং এটা যদি হয় তাহলে আমি অমিতাভ বচ্চন হিসেবে নয়, বরং তোমাদের নানা/দাদা হিসেবে নিজেকে পরিচয় দিতে বেশি সম্মানবোধ করব।’

অমিতাভ বচ্চনের পরবর্তী সিনেমা পিংক। ড্রামা-থ্রিলার ঘরানার সিনেমাটিতে একজন আইনজীবীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাবে সিনেমাটি।

আপনার মতামত জানানঃ