ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  আন্তর্জাতিক   »   বন্যায় তিন দেশে ৪০ লাখ মানুষ নিরাশ্রয়

বন্যায় তিন দেশে ৪০ লাখ মানুষ নিরাশ্রয়

জুলাই ২০, ২০২০ - ৬:১১ অপরাহ্ণ
বন্যা

চীনের পূর্বাঞ্চল, ভারতের আসাম ও নেপালের বেশ কয়েকটি জেলায় বন্যায় অন্তত ৪০ লাখ মানুষ নিরাশ্রয় হয়েছেন। বন্যায় নিখোঁজ রয়েছেন বহু মানুষ। ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে ফসলসহ বিভিন্ন স্থাপনার। এখনও বৃষ্টি হতে থাকায় পরিস্থিতি ভয়াবহ হওয়ার শঙ্কা করা হচ্ছে। এদিকে চীনেও উন্নতি হয়নি বন্যা পরিস্থিতির। নদ-নদীগুলোর পানি বেড়ে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে।

বন্যায় আসামের অভয়ারণ্যে বিরল প্রজাতির ৮ গণ্ডারের মৃত্যু হয়েছে। নেপাল ও ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য আসামে মৌসুমি বৃষ্টিতে সৃষ্ট বন্যায় ঘরবাড়ি ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছেন প্রায় ৪ কোটি মানুষ। চীনের তিব্বত থেকে ভারত ও বাংলাদেশ হয় প্রবাহিত ব্রহ্মপুত্রের পানি বৃদ্ধির ফলে ফসল নষ্ট ও ভূমিধ্বস হয়েছে এবং কয়েক কোটি মানুষ গৃহহারা হয়েছেন বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

আসামের এক রাজ্য কর্মকর্তা জানান, মে মাসের শেষ দিক হতে শুরু হওয়া তিন ধাপের বন্যায় ২৭ লাখ ৫০ হাজার মানুষ ঘরবাড়ি ছেড়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ৭৯ জনের। ভারতের এই রাজ্যটি এক সঙ্গে করোনা মহামারি ও বন্যার কবলে পড়েছে। ৩৩টি জেলার মধ্যে ২৫টিতে বন্যা পরিস্থিতি দেখা দিয়েছে।

প্রতিবেশী দেশ নেপালের সরকার রবিবার জনগণকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছে। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ভারি বৃষ্টির আশঙ্কা করা হচ্ছে। জুন থেকে শুরু হওয়া বন্যা ও ভূমিধসে শতাধিক প্রাণহানি হয়েছে। এখনও ৪৮ জন নিখোঁজ থাকায় মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। তিনি বলেন, তল্লাশী ও উদ্ধার অভিযান চলছে। তবে তাদের জীবিত উদ্ধারের সম্ভাবনা খুব কম বন্যায় আসামের অভয়ারণ্যে বিরল প্রজাতির ৮ গণ্ডারের মৃত্যু হয়েছে।

চীনের তিব্বত থেকে ভারত ও বাংলাদেশ হয় প্রবাহিত ব্রহ্মপুত্রের পানি বৃদ্ধির ফলে ফসল নষ্ট ও ভূমিধস হয়েছে এবং কয়েক কোটি মানুষ গৃহহারা হয়েছেন বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

আসামের এক রাজ্য কর্মকর্তা জানান, মে মাসের শেষ দিক হতে শুরু হওয়া তিন ধাপের বন্যায় ২৭ লাখ ৫০ হাজার মানুষ ঘরবাড়ি ছেড়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ৭৯ জনের।

আসামের পানি সম্পদমন্ত্রী কেশাব মহন্ত বলেন, বন্যা পরিস্থিতির এখনও অবনতি বিদ্যমান। বেশিরভাগ নদীর পানিই বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

ভারতের এই রাজ্যটি এক সঙ্গে করোনা মহামারি ও বন্যার কবলে পড়েছে। ৩৩টি জেলার মধ্যে ২৫টিতে বন্যা পরিস্থিতি দেখা দিয়েছে।

প্রতিবেশী দেশ নেপালের সরকার রবিবার জনগণকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছে। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ভারি বৃষ্টির আশঙ্কা করা হচ্ছে। জুন থেকে শুরু হওয়া বন্যা ও ভূমিধসে শতাধিক প্রাণহানি হয়েছে।

আপনার মতামত জানানঃ