ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  আইন-আদালত   »   প্রধান শিক্ষকের কারাদণ্ডঃ অর্থ আত্মসাতের দায়ে

প্রধান শিক্ষকের কারাদণ্ডঃ অর্থ আত্মসাতের দায়ে

September 19, 2016 - 1:22 PM

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর ডেমরার সারুলিয়ায় অবস্থিত হাজী মোয়াজ্জেম আলী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের অর্থ আত্মসাতের দায়ে বিদ্যালয়টির প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক আব্দুস সালাম মুন্সিকে ২ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

সোমবার ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আলী মাসুদ সেখ এ রায় দেন।

রায়ে ২ বছর কারাদণ্ডের পাশাপাশি তাকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জরিমানা অনাদায়ে তাকে আরো ১ মাস কারাভোগ করতে হবে।

অপরাধ প্রমাণিত না হওয়ায় মামলার অপর আসামি বিদ্যালয়টির অফিস সহকারী মফিজুল ইসলামকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে।

২০১০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৯ মাসের স্কুলের হিসাব অডিট করে ৯ লাখ ১৫ হাজার ১০১ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে বিদ্যালয়টির জ্যেষ্ঠ শিক্ষক মোনজেল মোরশেদ ২০১১ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি মামলাটি দায়ের করেন।

মামলায় উল্লেখ করা হয়, বিদ্যালয়টির প্রভাতী ও দিবা শাখায় সেই সময় প্রায় ২ হাজার ছাত্র-ছাত্রী অধ্যয়নরত ছিল। বিদ্যালয়টির শিক্ষক ও কর্মচারীদের বেতন দিতে না পারায় ঢাকা জেলা প্রশাসকের পক্ষে সরকারের উপ-সচিব মো. আমীর হোসেন আয়-ব্যয় অডিট করার উদ্যোগ নেন।

মাত্র ৯ মাসের অডিটে দেখা যায়, ছাত্র-ছাত্রীদের বেতন ও পরীক্ষার ফি বাবদ আয় হয় ৩২ লাখ ৭৬ হাজার ৬ টাকা। কিন্তু ব্যাংকে জমা হয় ২২ লাখ ৪৪ হাজার ৬৫ টাকা। এ সময় বিভিন্ন উন্নয়নমূলক খাতে ব্যয় দেখানো হয় ১ লাখ ১৬ হাজার ৮৪০ টাকা। বাকি ৯ লাখ ১৫ হাজার ১০১ টাকা ব্যাংকে জমা না দেওয়ায় তৎকালীন প্রধান শিক্ষক আব্দুস সালাম মুন্সির বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়।

বাদীপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন- অ্যাডভোকেট শাহজাহান খান, আজাদ রহমান, প্রিয়লাল সাহা, জাহিদুর রহমান, সৈয়দা ফরিদা ইয়াসমিন জেসি ও তাছলিমা ইয়াসমিন দিপা।

সাজাপ্রাপ্ত আসামির পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট মোখলেছুর রহমান ও খালাসপ্রাপ্ত আসামির পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট মবিনুল ইসলাম।

আপনার মতামত জানানঃ