ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  শিক্ষা   »   প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য জানতে অবস্থান কর্মসূচি জবি শিক্ষার্থীদের

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য জানতে অবস্থান কর্মসূচি জবি শিক্ষার্থীদের

September 1, 2016 - 11:33 AM

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে পরিত্যক্ত জমিতে আবাসিক হল নির্মাণের দাবিতে ও এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্পষ্ট বক্তব্য জানতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে শিক্ষার্থীরা এ অবস্থান কর্মসূচি শুরু করেন।

আন্দোলনকারীরা জানান, প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে হল নির্মাণের সুস্পষ্ট ঘোষণা না পাওয়া পর্যন্ত তারা আন্দোলন থেকে সরবেন না। ধারাবাহিকভাবে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে যাবেন।

জবির বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী রাশেদুল ইসলাম জানান, সম্প্রতি জঙ্গি হামলার কারণে অধিকাংশ বাড়িওয়ালা ব্যাচেলরদের বাসা ভাড়া দিতে চান না। আবার অনেকে বাসা ভাড়াও বাড়িয়েছেন। এ কারণে শিক্ষার্থীরা নানামুখী জটিলতায় পড়ছেন।

আইন বিভাগের শিক্ষার্থী চৈতালী বলেন, ‘আমরা এমন একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ছি যার নিজস্ব কোনো হল নেই। এ কারণে আমরা বিভিন্ন বাসায় ভাড়া থাকি। কিন্তু ভাড়া বাসায় থাকলে শিক্ষার্থীদের যে পরিমাণ ব্যয় এবং সমস্যার মুখোমুখি হতে হয় তা অন্যরা জানেন না। পাশাপাশি পড়ালেখায়ও সমস্যা হয়।

এদিকে শিক্ষার্থীদের অবস্থান কর্মসূচিতে সংহতি প্রকাশ করেছেন ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া।

এর আগে ২০১১ সালে শিক্ষার্থীদের অন্দোলনের মাধ্যমে জাতীয় কবির নামে একটি হল উদ্ধার করা হয়। ওই হলে শিক্ষার্থীদের থাকার কোনো পরিবেশ নেই। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষও তা সংস্কার করেনি। এ কারণে শিক্ষার্থীদের ঠাঁই ওই হলে হয়নি। পরে ২০১৪ সালে হাবিবুর রহমান নামে আরেকটি হল উদ্ধার করা হলেও সেটি এখন পরিত্যক্ত।

এদিকে ২০১৩ সালে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছার নামে একটি ছাত্রী হলের কাজ শুরু হলেও এখনো প্রথম তলা নির্মাণ শেষ হয়নি। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে ৫ সেপ্টেম্বর এর প্রথম তলার ছাদ ঢালাইয়ের কাজ হবে।

অন্যদিকে কেরানীগঞ্জে ছাত্রদের হল নির্মাণের জন্য দেড় বছর আগে ২২ বিঘা জমি কেনা হলেও এখনো কাজ শুরু হয়নি। জানা যায়, জবি উন্নয়ন প্রকল্প নামের এ প্রকল্প এখনো একনেকে অনুমোদন পায়নি।

২০১৪ সালের ২৩ মার্চ কেন্দ্রীয় কারাগারের জমির দাবিতে জবি কর্তৃপক্ষ স্বরাষ্ট্র সচিব বরাবর আবেদন করে। কিন্তু এখনো এ বিষয়ে কোনো সাড়া মেলেনি। এর আগে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, পুরান ঢাকায় যেখানেই খালি জায়গা পাওয়া যাবে সেখানেই জবি শিক্ষার্থীদের জন্য হল নির্মাণ করা হবে।

আপনার মতামত জানানঃ