ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  জাতীয়প্রধান সংবাদ   »   প্রতিবন্ধী শিশুদের এমনভাবে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় সে আর পরনির্ভরশীল থাকে না: প্রধানমন্ত্রী

প্রতিবন্ধী শিশুদের এমনভাবে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় সে আর পরনির্ভরশীল থাকে না: প্রধানমন্ত্রী

ডিসেম্বর ৫, ২০১৯ - ৪:১৭ অপরাহ্ণ

ঢাকা: প্রতিবন্ধীদের আত্মনির্ভরশীল করতে সরকার উন্নত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা নেবে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, প্রতিবন্ধী শিশুদের এমনভাবে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় সে আর পরনির্ভরশীল থাকে না, নিজে চলতে পারে।

বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) রাজধানীর মিরপুরে জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন প্রাঙ্গণে ২৮তম আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস ও ২১তম জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস পালন এবং জাতীয় প্রতিবন্ধী কমপ্লেক্স ‘সুবর্ণ ভবন’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমরা বিদেশে দেখেছি প্রতিবন্ধী শিশুদের এমনভাবে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় সে আর পরনির্ভরশীল থাকে না, নিজে চলতে পারে। এ ধরনের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা আমাদের করা দরকার, ফলে অনেক ক্ষেত্রে তারা নিজেরা চলতে পারবে। সেই ব্যবস্থাও আমরা নেবো।

উপজেলা পর্যায় পর্যন্ত প্রতিবন্ধী সেবা কেন্দ্র চালু করতে সরকারের পরিকল্পনার কথা জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ইতোমধ্যে দেশের ৬৪ জেলার ৩৯টি উপজেলায় মোট ৬১টি প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র চালু হয়েছে। আমরা প্রতিটি উপজেলা পর্যায় পর্যন্ত করবো। সেটা আমি করতে চাচ্ছি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ইতোমধ্যে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছিলাম যে কোন কোন জেলা-উপজেলায় আমাদের জমি রয়েছে। বহু জমি হয়তো পতিত অবস্থায় আছে, বহু জমি আছে দখলে। বহু জমি অবহেলিত আছে বা অন্য কোনো কাজে লাগছে সেগুলো আমরা খুঁজে বের করছি।

তিনি বলেন, ‘আমরা একেবারে জেলা-উপজেলা পর্যায় পর্যন্ত বিভিন্ন প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা, খেলাধুলার ব্যবস্থা, বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা সৃষ্টি করা, এমনকী কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা আমরা আমাদের প্রতিবন্ধীদের জন্য করবো। আমাদের সে পরিকল্পনা রয়েছে।’

‘ইতোমধ্যে আমরা অনুরোধ করবো সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়কে যে এই জায়গাগুলো বের করে আপনারা একটা প্রজেক্ট নেন উপজেলা পর্যায় পর্যন্ত। যাতে আমরা সার্বিক ব্যবস্থা নিতে পারি।’

উন্নয়নের মূল স্রোতধারায় প্রতিবন্ধীদের সম্পৃক্ত করতে সরকারের উদ্যোগের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, আমরা চাই দেশের উন্নয়ন, আর এই উন্নয়নের ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধীদের আমরা গুরুত্ব দিয়ে থাকি। তারা যেন কোনো রকম পেছনে পড়ে না থাকে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের সমাজটাকে আমরা গড়ে তুলতে চাই। একটা বৈষম্যহীন সমাজ। জাতির পিতা আমাদের স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন। এই স্বাধীন দেশে সবাই সমান অধিকার নিয়ে বাঁচবে সেটাই আমাদের লক্ষ্য। সে লক্ষ্য নিয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

আপনার মতামত জানানঃ