ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  জাতীয়   »   পূবার্চলে স্থাপন হবে আন্তর্জাতিক মানের কৃষি গবেষণাগারঃ

পূবার্চলে স্থাপন হবে আন্তর্জাতিক মানের কৃষি গবেষণাগারঃ

নভেম্বর ৮, ২০২০ - ৮:৪৭ অপরাহ্ণ

রাজধানীর পূর্বাচল স্থাপন করা হবে আন্তর্জাতিক মানের কৃষি প্রক্রিয়াকরণ ইউনিট ও গবেষণাগার। দেশের কৃষিপণ্যের ওপর দেশি-বিদেশি ভোক্তার আস্থা অর্জন ও রফতানি বাড়াতে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক।

কৃষিপণ্যের ন্যায্য দাম নিশ্চিতে মধ্যস্বত্বভোগীদের দৌরাত্ম্য বন্ধ করতে অ্যাগ্রো প্রসেসরদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

রোববার (৮ নভেম্বর) করোনা-পরবর্তী ফুড ভ্যাল চেইন নিয়ে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি আয়োজিত ওয়েবিনারে এ কথা বলেন কৃষিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, এতে এশিয়া ও ইউরোপে কৃষি পণ্য রফতানি সম্ভব হবে। এই প্রসেসিং সেন্টারের জন্য প্রধানমন্ত্রী ২ একর জায়গা বরাদ্দ দিয়েছেন। সরকার জনগণের জন্য পুষ্টিগুণসমৃদ্ধ খাদ্য সরবরাহে অঙ্গীকারবদ্ধ। জিডিপিতে কৃষির অবদান কমলেও ১৭ কোটি মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত ও সার্বিক অর্থনৈতিক উন্নয়নে কৃষির গুরুত্ব কখনো কমবে না।

কৃষিমন্ত্রী আরও বলেন, বাংলাদেশে প্রক্রিয়াজাত কৃষিপণ্যের সম্ভাবনা আকাশছোঁয়া। আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার ও কৃষিপণ্যের বহুমুখীকরণের মাধ্যমে সরকার কৃষিকে লাভজনক করতে সর্বাত্মক চেষ্টা করছে। শুধু রফতানি নয়, দেশীয় বাজার সম্প্রসারণে আমদানি বিকল্প খাদ্য পণ্য তৈরির জন্য উদ্যোক্তাদের আরও বেশি কৃষিভিত্তিক শিল্প স্থাপন করতে হবে। এতে কর্মসংস্থানও বাড়বে। কীভাবে বিদেশের বাজার ধরা যায় সে বিষয়েও উদ্যোক্তাদেরও চিন্তাভাবনা করতে হবে।

ঢাকা চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি শামস মাহমুদ স্বাগত বক্তব্যে করোনা-পরবর্তী ফুড ভ্যালু চেইন নিশ্চিতে ২ লাখ ২৩ হাজার হেক্টর পতিত জমিতে ফষল চাষের উদ্যোগ গ্রহণের আহ্বান জানান। কৃষিপণ্যের বহুমুখীকরণে আধুনিক প্রযুক্তি ও অবকাঠামো নিশ্চিত, খাদ্যের গুনগতমান নিশ্চিতে নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোর সক্ষমতা বাাড়নো এবং কৃষিপণ্য উৎপাদন ও বিপণনে অনলাইন প্ল্যাটফর্ম তৈরির আহ্বান জানান।

ওয়েবিনারে উপস্থাপিত মূল প্রবন্ধে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফুড টেকনলজি অ্যান্ড রুরাল ইন্ডাস্ট্রি বিভাগের অধ্যাপক ড . এম বোরহান উদ্দিন বলেন, কম খরচে কৃষিপণ্য বাজারজাতকরণে উদ্যোক্তাদের নতুন প্রযুক্তি গ্রহণের সুযোগ নিশ্চিত, আর্থিক প্রণোদনা দান ও চুক্তিভিত্তিক চাষাবাদ জনপ্রিয় করতে হবে।

প্রাণ আরএফএল গ্রুপের পরিচালক উজমা চৌধুরী বলেন, টেকসই ফুড ভ্যালু চেইনের জন্য, কৃষিপণ্যের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করতে হবে। এ জন্য সরবরাহ ব্যবস্থা সচল রাখার পাশাপাশি মধ্যস্বত্বভোগীদের দৌরাত্ম্য কমাতে হবে।

এ ছাড়া কৃষিপণ্য সময়মতো ভোক্তার কাছে পৌঁছাতে যোগাযোগব্যবস্থা আধুনিকায়নের কথাও বলেন।

খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতে সব পক্ষে সঙ্গে সমন্বিতভাবে কাজ করছেন জানিয়ে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের সদস্য মঞ্জুর মোর্শেদ বলেন, উৎসস্থলে নিরাপদ খাদ্য উৎপাদন নিশ্চিত করতে হবে।

আপনার মতামত জানানঃ