ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  সারা বাংলা   »   নিহত জঙ্গি রিপনের দাফন গভীর রাতে

নিহত জঙ্গি রিপনের দাফন গভীর রাতে

September 3, 2016 - 2:29 PM
রাজশাহী

রাজশাহী : বগুড়ার শেরপুরে বন্দুকযুদ্ধে নিহত জঙ্গি আবু ইব্রাহিম ওরফে তারেক ওরফে রিপনের মরদেহ নেবেন না বলে পুলিশকে জানিয়েছিল পরিবারের সদস্যরা।

গত ২৯ আগস্ট রিপন নিহত হওয়ার পর ওই দিনই বিকেলে রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাদের নিয়ে গেলে পরিবারের সদস্যরা পুলিশকে এ কথা জানান।

পরদিন সাংবাদিকদেরও একই কথা বলেছিলেন রিপনের বোন সামিনা ফেরদৌস তিন্না। তবে তারা তাদের বোল পাল্টে জঙ্গি রিপনের লাশ নিয়েছেন। তড়িঘড়ি করে অনেকটা গোপনে গভীর রাতে রিপনের লাশ দাফনও করা হয়েছে।

রিপনের বোন সামিনা ফেরদৌস তিন্না শনিবার বিকেলে মুঠোফোনে জানান, শুক্রবার রাত ১১টার দিকে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজের মর্গ থেকে রিপনের মরদেহ তার বাড়িতেই আনা হয়। এরপর রাত সাড়ে ১২টার দিকে নগরীর হেতেমখাঁ কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

লাশ না নেওয়ার ঘোষণা দিয়েও পরবর্তীতে নেওয়ার কারণ জানতে চাইলে সামিনা ফেরদৌস বলেন, ‘আসলে আমিই তো আর একা সব সিদ্ধান্ত নিতে পারি না। আমার মা আর মামা এসে আমাকে বুঝিয়েছেন। পরে তারা লাশ এনেছেন। যে দোষ করেছিল, সে তো তার শাস্তি পেয়েই গেছে। তারা আর লাশকে শাস্তি দিতে চাননি।’

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রিপনের মা ঝর্ণা বেগম ও মামা খন্দকার সালেহ সিদ্দিক বগুড়া থেকে লাশ নিয়ে আসেন। রাজশাহী মহানগরীর দরগাপাড়া এলাকায় বোন সামিনা ফেরদৌসের বাড়িতে রিপনের লাশ নিয়ে আসার পর এলাকার তেমন কোনো লোকজন সে বাড়িতে যাননি। তড়িঘড়ি করে কিছুক্ষণ পরই রিপনের মরদেহ দাফন করা হয়। নিকটাত্মীয় ছাড়া এলাকার কোনো মানুষও দাফনকাজে অংশ নেননি।

গত ২৯ আগস্ট ভোররাতে বগুড়ার শেরপুরে বিশালপুরে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে রিপন ও বদর মামা ওরফে খালিদ মামা নামে আরেক জঙ্গি নিহত হন। পুলিশ বলছে, খালিদ মামা জেএমবির সামরিক কমান্ডার ও আত্মঘাতী স্কোয়াডের সদস্য। তার বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে। তিনি দিনাজপুরে ইতালি নাগরিক পিয়েরো পারোলারি হত্যাচেষ্টার সঙ্গে জড়িত ছিলেন। এ ছাড়া তিনি কান্তজিউ মন্দিরে হামলা মামলারও আসামি ছিলেন।

অন্যদিকে রিপন ছিলেন নতুন জঙ্গি সংগঠন ‘আনসার রাজশাহী’র মাস্টারমাইন্ড। এ ছাড়া তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক এএফএম রেজাউল করিম সিদ্দিকী হত্যাকাণ্ডের অন্যতম হোতা।

আপনার মতামত জানানঃ