ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  রাজনীতি   »   দেশে ফিরলে প্রধানমন্ত্রীকে গণসংবর্ধনা

দেশে ফিরলে প্রধানমন্ত্রীকে গণসংবর্ধনা

September 20, 2016 - 7:31 AM

নিজস্ব প্রতিবেদক : জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে অংশগ্রহণ শেষে আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর দেশে ফিরলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে গণসংবর্ধনা দেওয়া হবে। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম এ কথা বলেছেন।

মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলটির সম্পাদকমণ্ডলীর এক সভা শেষে এ কথা বলেন সৈয়দ আশরাফ।

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ইতিমধ্যেই জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে অংশগ্রহণের জন্য যুক্তরাষ্ট্র সফরে আছেন। তিনি জাতিসংঘে ভাষণ দেবেন। এটা আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশের অর্জনগুলো তিনি তুলে ধরবেন সমগ্র বিশ্ববাসীর সামনে। এ জন্য আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর বিকেল ৪টায় শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে গণভবন পর্যন্ত মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে গণসংবর্ধনা দেওয়া হবে। রাস্তার দুই পাশে নেতা-কর্মীরা দাঁড়িয়ে সংবর্ধনায় অংশ নেবেন।’

সৈয়দ আশরাফ আরো বলেন, ‘পাশাপাশি ২৮ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনের সকালে আমরা দলের পক্ষ থেকে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানাব এবং বিকেলে ৩টায় রাজধানীর খামারবাড়ি কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আলোচনা সভা করব।’

তিনি আরো বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কানাডাও সফর করেছেন। এটা গুরুত্বপূর্ণ ছিল। সেখানে বঙ্গবন্ধুর একজন হত্যাকারী অবস্থান করছে। তাকে কীভাবে বাংলাদেশে ফিরিয়ে আনা যায় এবং তার রায় কীভাবে কার্যকর করা যায়, সে বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কানাডীয় প্রধানমন্ত্রীর গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা হয়েছে। এখানে একটি সমস্যা আছে। এটা হলো যেদেশে মৃতুদণ্ড কার্যকর আছে সেখানে কানাডা আসামিকে ফেরত পাঠায় না। তারপরও কিন্তু আলোচনায় তা উঠে এসেছে। কীভাবে নূর চৌধুরীকে বাংলাদেশে ফিরিয়ে দিতে পারে সেটা উদ্ভাবন করার জন্য দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী একসঙ্গে কাজ করবেন।’

সৈয়দ আশরাফ বলেন, ‘এই সকল সামগ্রিক ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে গণসংবর্ধনা দেওয়া হবে। এজন্য আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করছি। কালকেও আমাদের সভা আছে। পরবর্তী সময়ে ঢাকার পার্শ্ববর্তী জেলাগুলোর সঙ্গে আলোচনা করব, যাতে আমরা বিশাল একটি শোডাউন করতে পারি।’

পাশাপাশি আইসিটি খাতে প্রধানমন্ত্রীপুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়ের পুরস্কারপ্রাপ্তি নিয়েও পরবর্তী সময়ে সংবর্ধনার আয়োজন করা হবে বলে জানান সৈয়দ আশরাফ।

যৌথসভায় উপস্থিত ছিলেন দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজাম্মেল হক, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, কৃষিবিষয়ক সম্পাদক ড. আবদুর রাজ্জাক, আইনবিষয়ক সম্পাদক আবদুল মতিন খসরু, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক স্থপতি ইয়াফেস ওসমান, দপ্তর সম্পাদক আব্দুল মান্নান খান, সমাজ কল্যাণবিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, কার্যনির্বাহী সদস্য এনামুল হক শামীম, সুজিত রায় নন্দী, আমিনুল ইসলাম আমিন প্রমুখ।

আপনার মতামত জানানঃ