ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  জাতীয়   »   ‘দুই মেয়রের দ্বন্দ্ব অচিরেই সমাধান হবে’

‘দুই মেয়রের দ্বন্দ্ব অচিরেই সমাধান হবে’

January 16, 2021 - 3:53 PM

ঢাকা দক্ষিণ সিটির বর্তমান ও সাবেক মেয়রের মধ্যে যে দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয়েছে, তা অচিরেই সমাধান হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম। বলেন, ‘সবার দৃষ্টিভঙ্গি এক নয়। মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে পার্থক্য থাকতেই পারে। কিন্ত একটা সময়ের ব্যবধানে তা ঠিক হয়ে যায়। দুই মেয়রের দ্বন্দ্ব অচিরেই সমাধান হবে।’

শনিবার (১৬ জানুয়ারি) রাজধানীতে ঢাকা ওয়াসা ভবনে বুড়িগঙ্গা হলে আয়োজিত সরকারি-বেসরকারি ব্যাংককে ঢাকা ওয়াসা কর্তৃক ‘বিল কালেকশন অ্যাওয়ার্ড ২০১৯-২০’ প্রদান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

এ সময় রাজধানীর জলাবদ্ধতা নিরসনে ড্রেনেজ ব্যবস্থাপনার কর্মপরিকল্পনা ঠিক করতে দুই সিটি করপোরেশনকে নিয়ে আগামী সপ্তাহে বৈঠক করা হবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম। ঢাকা ওয়াসা থেকে দুই সিটি করপোরেশনের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করায় ওয়াসার চেয়ে সিটি করপোরেশন ভালো করতে পারবে বলেও মন্তব্য করেন মন্ত্রী।

মো. তাজুল ইসলাম বলেন, নগরীর পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা ঢাকা ওয়াসা থেকে দুই সিটি করপোরেশনের নিকট দেওয়ার পর থেকেই মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় ইতোমধ্যে কাজ শুরু করলেও আগামী সপ্তাহে দুই সিটি করপোরেশনকে নিয়ে মন্ত্রণালয়ে কর্মপরিকল্পনা ঠিক করা হবে। দুই মেয়রের পরিকল্পনা জেনে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকেও কর্মপরিকল্পনা ঠিক করে দেওয়া হবে। ঢাকা শহরের নাগরিক সমস্যা সমাধান করে একটি আধুনিক বাসযোগ্য দৃষ্টিনন্দন শহর করতে যা যা করার দরকার তা করা হবে।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, দুই সিটির মেয়র জনগণের ভোটে নির্বাচিত। জনপ্রতিনিধিরাই পারেন জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষা পূরণ করতে। জলাবদ্ধতা নিরসনের জন্য ড্রেনেজ ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব দুই সিটির নিকট হস্তান্তর করায় মেয়রদ্বয় নগরবাসীকে এ সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে পারবেন বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

আমিনবাজারে বর্জ্যের যে স্তূপ সেখানে আর ময়লা ফেলার সুযোগ নেই- এমন প্রশ্নের জবাবে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই তিনি রাজধানীর বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নিয়ে কাজ শুরু করেন। সে অনুযায়ী বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য আমিনবাজারে ইন্সিনেরেশন প্লান্ট স্থাপন করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে এবং কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ইন্সিনেরেশন প্লান্টে প্রতিদিন যে পরিমাণ বর্জ্য লাগবে সে পরিমাণ বর্জ্য সরবরাহ করলে যেখানে সেখানে আর ময়লা আবর্জনা পড়ে থাকবে না। এ ছাড়া সব সিটি করপোরেশন এবং প্রতিটি জেলায় ইন্সিনেরেশন প্লান্ট স্থাপন করা হবে বলেও জানান মো. তাজুল ইসলাম।

এর আগে অনুষ্ঠানে দেওয়া প্রধান অতিথির বক্তব্যে মো. তাজুল ইসলাম বলেন, উন্নত দেশের তালিকায় যেতে বাংলাদেশ আর খুব বেশি দূরে নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন, তাতে শুধু সময়ের অপেক্ষামাত্র। জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে অনেক অর্জন সাধিত হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, অষ্টম পঞ্চবার্ষিকতে সমন্বিত উদ্যোগকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। দেশকে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে নিতে হলে প্রত্যেকের ওপর যে দায়িত্ব রয়েছে তা সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করতে হবে।

Tags:

আপনার মতামত জানানঃ