ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  আন্তর্জাতিক   »   থাইল্যান্ডে নির্যাতনের সংস্কৃতি চলছে

থাইল্যান্ডে নির্যাতনের সংস্কৃতি চলছে

September 28, 2016 - 1:53 PM

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : থাইল্যান্ডের সেনা সরকার অভ্যুত্থানের পর থেকে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীকে ‘নির্যাতনের সংস্কৃতি’ চালুর সুযোগ করে দিয়েছে। আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে ৭৪টি নির্যাতনের অভিযোগ তুলে ধরা হয়েছে। সেনারা মারধর ও ওয়াটারবোর্ডিংয়ের মতো নির্যাতন পদ্ধতি প্রয়োগ করতো বলেও প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে এই প্রতিবেদনটি প্রকাশ করার ছিল। কিন্তু সরকারের পক্ষ থেকে হুমকি দিয়ে বলা হয়েছে, যারা এ সংবাদ সম্মেলনে কথা বলবেন তাদেরকে শ্রম আইনে গ্রেপ্তার করা হতে পারে। এরপরই সংবাদ সম্মেলনটি বাতিল ঘোষণা করে অ্যামনেস্টি।

২০১৪ সালে থাইল্যান্ডের ক্ষমতা দখল করে সেনাবাহিনী। ওই সময় সেনাবাহিনী দেশটিতে চলমান অস্থির রাজনৈতিক পরিবেশ শান্ত করার পর ক্ষমতা থেকে বিদায় নেবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল।

অ্যামনেস্টির দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের পরিচালক রাফেন্দি দেজামিন বলেন, সেনা শাসকরা দেশটিতে ব্যাপক হারে নির্যাতনের সংস্কৃতি ছড়িয়ে দেওয়ার সুযোগ করে দিয়েছে। এখানে নির্যাতনকারীর কোনো জবাবদিহিতা নেই এবং নির্যাতিতের জন্য বিচার প্রার্থণার কোনো সুযোগ নেই।’

সেনা সরকারের পক্ষ থেকে অবশ্য নির্যাতনের অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখপাত্র জেনারেল সানসেরন কাইউকামনার্ড বলেছেন, ‘ আমাদের তদন্তে এ ধরণের নির্যাতনের কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। আমি নির্যাতনের কোনো লক্ষণ দেখতে পাইনি এবং থাইল্যান্ডের জনগণ নির্যাতনের কোনো লক্ষণ দেখতে পায়নি।’

আপনার মতামত জানানঃ