ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  ক্রাইম   »   তালায় মৎস্য ঘেরে চুরির অভিযোগে বৃদ্ধোকে পিটিয়ে হত্যা

তালায় মৎস্য ঘেরে চুরির অভিযোগে বৃদ্ধোকে পিটিয়ে হত্যা

আগস্ট ১৯, ২০২০ - ১২:৫৪ পূর্বাহ্ণ

শেখ আবুমুছা  সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধিঃ সাতক্ষীরার তালায় মৎস্য ঘেরে মাছ চুরির অভিযোগে লূৎফর নিকারী (৬০) নামে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি সোমবার (১৭ আগষ্ট) রাতে উপজেলার হাজরাকাটি-জেয়ালানলতা গ্রামের মধ্যবর্ত্তী নলবুনিয়া এলাকার সরদার মশিয়ার রহমানের মালিকানাধীন মৎস্য ঘেরে ঘটেছে ।এঘটনায় প্রাথমিক জিঞ্জাসাবাদের জন্য মৎস্য ঘেরমালিক ও তালা উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান সরদার মশিয়ার রহমানকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত লুৎফর নিকারী (৬০) তালা সদরের জেয়ালা নলতা নিকারীপাড়ার মৃত আইজুল নিকারীর ছেলে। আর আটক সরদার মশিয়ার রহমান তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও তালা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান এবং তালা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক।

ঘটনার প্রতিবাদে মঙ্গলবার (১৮ আগষ্ট) সকালে জেয়ালা নলতা নিকারীপাড়ার শত শত গ্রামবাসি তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অবস্থান নিয়ে উপ-শহরে একটি বিক্ষোভ মিছিল করেন। পরে গ্রামবাসি মিছিল সহকারে তালা থানা ঘেরাও করেন । এ সময় গ্রামবাসী ‘খুনিদের ফাঁসি চাই’ স্লোগান  দিতে থাকেন।

নিহত লূৎফর নিকারী

 

নিহতের ভাতিজা জেয়ালা নলতা গ্রামের রুহুল আমিন নিকারী এপ্রতিনিধিকে জানান, হাজরাকাটি-জেয়ালানলতা গ্রামের মধ্যবর্ত্তী নলবুনিয়া বিলের সরকারি খালে মাছ ধরছিলেন লুৎফর নিকারীর ছেলে সেলিম নিকারী। ঐ খালের সঙ্গে ভাইস চেয়ারম্যান সরদার মশিয়ার রহমানের মৎস্য ঘেরের ভেড়ী বাঁধ রয়েছে। সেলিমকে খাল থেকে ধরে আটকে রাখেন সরদার মশিয়ারের ঘেরের কর্মচারীরা। এরপর সরদার মশিয়ার ঘটনাস্থলে পৌঁছে বারুইহাটি গ্রামের রনিসহ তিনজন মিলে তাকে মারপিট করেন বলে দাবী রুহুল আমিন নিকারীর ।

নিহতের স্ত্রী ছবিরন বিবি জানান, তার ছেলে সেলিম নিকারী রাতে এলাকার একটি এড়া খালে (সরকারী খাস) মাছ ধরতে গিয়েছিলো। তার ছেলে সেলিমকে মারপিট করা হচ্ছে শুনে, স্বামী লৎফর নিকারী সেখানে যায়। এসময় স্বামী লূৎফর নিকারীকেও বেধড়ক মারপিট করে ভাইস-চেয়ারম্যানসহ ঘেরের কর্মচারীরা। একপর্যায়ে গ্রামবাসির সহায়তায় স্বামী লুৎফর নিকারী ও ছেলে সেলিম নিকারীকে হাসপাতালে নেওয়ার পথে লুৎফর নিকারী মারা যায়। বর্তমানে তার ছেলে হাসপাতালে ভর্তি আছে। এ সময় ছবিরন বিবি তার স্বামী হত্যার বিচার চান ।
তবে আটক সরদার মশিয়ারের দাবী, ঐ সময়ে তিনি ঘেরে ছিলেন না। তাদের মারপিটও করা হয়নি। লুৎফর নিকারী অসুস্থ্য ছিলেন।
তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডা. রাজিব সরদার এ প্রতিনিধিকে জানান, তাকে মৃত অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয়েছিল। তবে নিহতের শরীরের কোথায়ও আঘাতের চিহ্ন নেই।

তালা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মেহেদী রাসেল এ প্রতিনিধিকে জানান, প্রাথমিক জিঞ্জাসাবাদের জন্য সরদার মশিয়ার রহমানকে আটক করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।নিহাত লুৎফার রহমানের লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

আপনার মতামত জানানঃ