ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  জাতীয়   »   তথ্য কমিশনের মূল কাজ হলো নাগরিকের অভিযোগ গ্রহণ ও আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া

তথ্য কমিশনের মূল কাজ হলো নাগরিকের অভিযোগ গ্রহণ ও আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া

September 27, 2016 - 9:42 AM

সচিবালয় প্রতিবেদক : তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, তথ্য কমিশনের মূল কাজ হলো নাগরিকের অভিযোগ গ্রহণ ও আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া। ২০১৫ সালে তথ্য কমিশনে ৩৩৬টি অভিযোগ দাখিল হয়েছে। যার মধ্যে ২৪০টি অভিযোগ শুনানির জন্য গ্রহণ করা হয়েছে।

তথ্য অধিকার দিবস উপলক্ষ্যে মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ের তথ্য অধিদপ্তরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। ২৮ সেপ্টেম্বর পালিত হবে তথ্য অধিকার দিবস।

মন্ত্রী বলেন, ‘এসব অভিযোগ পর্যালোচনা করে দেখা গেছে প্রায় ৬৭ শতাংশ সাধারণ নাগরিক তথ্য কমিশনে অভিযোগ দায়ের করেছেন। বাকী অভিযোগকারীর মধ্যে ১৭শতাংশ সাংবাদিক, ১০ শতাংশ চাকুরিজীবী, ৩ শতাংশ আইনজীবী ও এক শতাংশ মুক্তিযোদ্ধা রয়েছেন। তথ্য অধিকার আদায়ে সাধারণ জনগণ আইনটি বেশি ব্যবহার করলেও দারিদ্র প্রান্তিক জনগোষ্ঠির ব্যক্তিগত উদ্যোগে অভিযোগ দায়েরের সংখ্যা এখনও সীমিত। বরং তারা বেসরকারি সংস্থা ও আইন সম্পর্কে সচেতন নাগরিকদের সহায়তায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। কিন্তু সরকার চায় দেশের প্রত্যেক মানুষ তাদের তথ্য প্রাপ্তির অধিকার আদায়ে সচেষ্ট হোক।’

ইনু বলেন, ‘তথ্য অধিকার আইনে অনুরোধ প্রাপ্তির তারিখ হতে অনধিক ২০ কিংবা ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের কর্তৃপক্ষকে তথ্য সরবরাহ করতে হবে নাগরিককে। তথ্য সরবরাহে ব্যর্থ হলে ওই প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে তথ্য কমিশনে মামলা করা যাবে।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার গণতন্ত্রকে সুসংহত করতে জনগণের তথ্য প্রাপ্তির নিশ্চয়তা বিধানে তথ্য অধিকার আইন ২০০৯ প্রণয়ন করেছে। পরবর্তী সময়ে সংসদে তথ্য অধিকার আইন ২০০৯ পাস হয়। এটি একটি যুগান্তকারি পদক্ষেপ।’

তিনি বলেন, ‘সঠিক তথ্য প্রবাহের জন্য সঠিক তথ্য জানানোর বিকল্প নেই। আর এর বড় ভূমিকা রাখতে পারে গণমাধ্যম। জনগণের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে তথ্য মন্ত্রণালয় দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের প্রায় ২ হাজার সাংবাদিককে তথ্য অধিকার আইন সম্পর্কে প্রশিক্ষণ দিয়েছে। যাতে তাদের মাধ্যমে জনগণের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি হয়।’

মন্ত্রী বলেন, ‘তথ্য আইন সম্পর্কে জনগণকে জানাতে হবে। না হলে এর সুফল পাওয়া যাবে না। এর প্রয়োগ সম্পর্কেও জনগণকে অবহিত করতে হবে।’ এর মাধ্যমে নিজেদের ক্ষমতায়নের পথ সুগম করতে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান মন্ত্রী।

তথ্য অধিকার দিবস উপলক্ষ্যে বুধবার রাজধানীতে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। কর্মসূচিতে অংশ নেবেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ।

তথ্য সচিব মরতুজা আহমেদ, তথ্য কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক গোলাম রহমান, প্রধান তথ্য কর্মকর্তা শামীম চৌধুরী সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ।

আপনার মতামত জানানঃ