ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  খেলাধুলা   »   টেস্টে চাপের কিছু দেখছেন না সাব্বির

টেস্টে চাপের কিছু দেখছেন না সাব্বির

October 17, 2016 - 1:04 PM

চট্টগ্রাম থেকে : ২৬ টি-টোয়েন্টি ও ২৯ ওয়ানডে খেলার অভিজ্ঞতা থাকা সাব্বির রহমান প্রথমবারের মতো ডাক পেয়েছেন টেস্ট ক্রিকেটে। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে দারুণ সাফল্য উপহার দেওয়া সাব্বিরের বিশ্বাস শুদ্ধতার ক্রিকেটেও বাংলাদেশকে একই সাফল্য দিতে পারবেন।

টেস্ট স্কোয়াডে ডাক পাওয়ার পর সাব্বির রহমান আজই প্রথম গণমাধ্যমের  মুখোমুখি হলেন।
পাঠকদের জন্য তা দেওয়া হল:

প্রশ্ন : টেস্ট নিয়ে সবারই স্বপ্ন থাকে। আপনারটা জানতে চাচ্ছি?
সাব্বির রহমান : টেস্ট খেলোয়াড় হওয়া একটা স্বপ্নের ব্যাপার। আমারও স্বপ্ন ছিল টেস্ট খেলোয়াড় হব। আমার পরিবারও অনেক খুশি যে আমি টেস্ট দলে ডাক পেয়েছি। ছোট বেলাই থেকে স্বপ্ন ছিলো অবশ্যই আমি টেস্ট খেলব। কিন্তু টেস্ট তো হুট করেই খেলা যায় না। স্টেপ বাই স্টেপ খেলার চেষ্টা করেছি। টি-টোয়েন্টিতে প্রথম খেলেছি, ওয়ানডে খেলেছি এখন টেস্টেও ইনশাল্লাহ ওইভাবে খেলব।

প্রশ্ন : আন্তর্জাতিক ৪০-৫০ টা ম্যাচ খেলা কতোটা ভালো প্রস্তুতি হতে পারে টেস্টের জন্য?
সাব্বির রহমান : আমার মনে হয় না আন্তর্জাতিক ৬০ বা ৫০ ম্যাচ খেলার পর টেস্ট ম্যাচে ঢোকাটা অনেক বড় একটা অভিজ্ঞতার ব্যাপার। আর হুট করে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলাও যায় না। এসব আমাকে ব্যাকআপ দেবে টেস্ট ম্যাচ খেলার জন্য।

প্রশ্ন : সীমিত পরিসরে যেভাবে খেলে এসেছেন এখানেও কি একইভাবে খেলবেন?
সাব্বির রহমান : না তেমন বেশি পরিবর্তন করব কিনা জানি না। রান তো রানই। যেভাবে রান করি না কেন! ছয় মারি বা চার মারি রান তো রানই। সবাই স্কোরটাই দেখবে। চেষ্টা করব আমার স্ট্রেন্থ প্রমাণ করার জন্য। সবচেয়ে বড় ব্যাপার এখানে সময়ের ব্যাপার আছে। অনেক বল ডট হলেও কোনো সমস্যা নেই। মানসিকভাবে স্বস্তির জায়গা আছে যে ডট হলেও সমস্যা নেই। ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টিতে যেটা হয় যে ডট হলে চাপ চলে আসে। কিন্তু এখানে চাপের কিছু নেই। সময় নিয়ে খেলাটাই সবচেয়ে ভালো।

প্রশ্ন : শুরুটা টি-টোয়েন্টি দিয়ে। এরপর ওয়ানডে। এখন টেস্টে। নিজের ব্যাপারটা কিভাবে দেখেন। কতোটা উন্নতি করেছেন?
সাব্বির রহমান : হ্যাঁ, প্রথমে সবাই ভাবত আমি টি-টোয়েন্টির খেলোয়াড়। ওয়ানডে বা টেস্টে আমি খেলতে পারব না। কিন্তু আমি প্রমাণ করেছি যে ওয়ানডেও আমি খেলতে পারি। ইনশাল্লাহ টেস্ট দলে আমি সুযোগ পেয়েছি, ম্যাচ খেললে আমার অভিষেক হবে। আমি চেষ্টা করব এই তিনটা ফরম্যাটে যেন আমি একইভাবে খেলতে পারি।

প্রশ্ন : নিজের মাইন্ডসেট কিভাবে করেছেন?
সাব্বির রহমান : সবকিছুই মনের ব্যাপার। টি-টোয়েন্টিতে এক মাইন্ড, ওয়ানডে এক মাইন্ড, টেস্টে এক মাইন্ড। ওয়ানডের আগে মাইন্ড সেটআপ করতাম এটা ওয়ানডে ম্যাচ, সময় নিয়ে খেলা দরকার। আবার টি-টোয়েন্টির আগে সেট আপ করতাম এটা বল টু বল খেলা উচিত। এটা টেস্ট ম্যাচ, চেষ্টা করব বল বিচার করে খেলতে। আমি এটা অনুশীলন করেছি মাঠের বাইরে। একা অনুশীলন করেছি। অনেকসময় চিন্তা ভাবনা করেছি কিভাবে টেস্ট ম্যাচ খেলা যায়। কিভাবে ভালো কিছু করা যায়। সব কিছু মানসিক শক্তির ওপরই নির্ভর করে।

প্রশ্ন : কোন বিভাগটাতে বেশি জোর দিচ্ছেন?
সাব্বির রহমান : আমি চেষ্টা করব ব্যাটিং, বোলিং ও ফিল্ডিং তিন বিভাগেই ‍ভূমিকা রাখতে। আমি সব সময় শতভাগ দেয়ার চেষ্টা করি।

প্রশ্ন : ইংল্যান্ড দল হিসেবে কতোটা চ্যালেঞ্জিং?
সাব্বির রহমান : অবশ্যই ওরা অনেক ভালো দল। ওরা টেস্ট ন্যাশন দল। আমরা টেস্ট কম খেলি। ওরা সব সময়ই আমাদের থেকে বেশি টেস্ট ম্যাচ খেলে। তারপরও আমাদের কন্ডিশন অনুযায়ী ওদের কন্ডিশন অনেক আলাদা। আমরা চেষ্টা করব আমাদের কন্ডিশন কাজে লাগানোর জন্য।

প্রশ্ন : কোচ বলেছেন আমাদের ২০ উইকেট নেওয়ার সক্ষমতা নেই। ম্যাচের আগে আমরা একটু পিছিয়ে থাকলাম না?
সাব্বির রহমান: ২০ উইকেট নেয়ার চেয়ে ভালো ক্রিকেট খেলা সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

প্রশ্ন : ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টিতে আপনার বড় একটা ইনিংস খেলা বাকি। টেস্টে সেটা খেলার জন্য বড় সুযোগ কী?
সাব্বির রহমান : হ্যাঁ, আসলে টেস্ট ম্যাচে তো অনেক সময় থাকে। পাঁচদিন সময় থাকে ব্যাটিং করার। আমি যে সময় নামব হয়তো অনেক সময় থাকবে। চেষ্টা করব যতো লম্বা খেলা যায়।

প্রশ্ন : লেগ স্পিনার হিসেবে…
সাব্বির রহমান : আমি সব সময়ই বোলিং করার ব্যাপারে আগ্রহী। ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি, টেস্ট যেটাই হোক না কেন। বোলিংয়ে চেষ্টা করে যাচ্ছি আরো ভালো কিছু করা যায় কিনা। বা নিয়মিত বোলার হতে পারি কিনা। আমি অবশ্যই আমার শতভাগ দেয়ার চেষ্টা করব। আর অধিনায়ক যখন বোলিংয়ের জন্য ডাকেন আমি যেন পুরাটা দিতে পারি।

আপনার মতামত জানানঃ