ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  ক্রাইম   »   গৃহবধূর অগ্নিদগ্ধের ঘটনায় তার স্বামী ও শ্বশুরকে আটক

গৃহবধূর অগ্নিদগ্ধের ঘটনায় তার স্বামী ও শ্বশুরকে আটক

August 27, 2016 - 12:17 PM

গাজীপুর : গাজীপুরে দুই সন্তানের জননী সুমা আক্তার লাকী (৩০) নামে এক গৃহবধূর অগ্নিদগ্ধের ঘটনায় তার স্বামী ও শ্বশুরকে আটক করেছে পুলিশ।

 

আটককৃতরা হলেন লাকীর স্বামী রুবেল হোসেন ও শ্বশুর সামসুল হক। এ দিকে লাকীকে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

 

শুক্রবার গাজীপুর সদর উপজেলার ভাওয়াল মির্জাপুরের কলেজ পাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

 

লাকীর স্বামীর পরিবারের দাবি, সে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে।

 

আর লাকীর পরিবারের অভিযোগ, স্বামীর বাড়ির লোকজন তাকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে।

 

রুবেল হোসেন ও সামসুল হককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে শাহবাগ থানা পুলিশ আটক করেছে বলে জানিয়েছেন জয়দেবপুর থানার ওসি খন্দকার রেজাউল হাসান রেজা।

 

লাকীর ভাসুর ঝুমুর মিয়া জানান, রুবেল হোসেন ভাওয়াল মির্জাপুর এলাকার মুদি দোকানদার। পারিবারিক কলহের জেরে শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে লাকী তার ঘরের দরজা বন্ধ করে নিজের শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এক পর্যায়ে লাকী চিৎকার করে দরজা খুলে ঘরের বাইরে চলে আসে। চিৎকার শুনে তিনি (ঝুমুর মিয়া) ও তার স্ত্রী এসে লাকীর শরীরে ভিজা কাপড় জড়িয়ে এবং পানি ঢেলে আগুন নেভায়। খবর পেয়ে দোকান থেকে এসে স্বামী রুবেল হোসেন ও শ্বশুর সামসুল হক লাকীকে দ্রুত ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান।

 

লাকীর খালা ডলি জানান, অগ্নিদগ্ধ লাকি মুন্সিগঞ্জের টুঙ্গীবাড়ি থানার চাচিরবাড়ি এলাকার মালেক দেওয়ানের মেয়ে। তিনি অভিযোগ করেন পারিবারিক কলহের জেরে লাকীকে শ্বশুর বাড়ির লোকজন পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে।

 

গাজীপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইজাদুর রহমান মিলন জানান, লাকী এর আগেও একাধিকবার আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিল। এ নিয়ে কয়েক বার বিচার শালিসও হয়েছে।

 

জয়দেবপুর থানার ওসি খন্দকার রেজাউল হাসান রেজা জানান, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য লাকীর স্বামী ও শ্বশুরকে শাহবাগ থানা পুলিশ আটক করেছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

আপনার মতামত জানানঃ