ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  Uncategorized   »   খুলনা-কলকাতার বাস আসছে আজ

খুলনা-কলকাতার বাস আসছে আজ

August 30, 2016 - 1:15 PM

খুলনা : দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর আজ মঙ্গলবার থেকে খুলনা-কলকাতা রুটে পরীক্ষামূলকভাবে বাস সার্ভিস চালু হচ্ছে।

পরীক্ষামূলক চালু হওয়া বাসটি কলকাতা থেকে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে যশোর হয়ে সন্ধ্যায় খুলনায় এসে পৌঁছাবে।

সন্ধ্যায় সোয়া ৭টায় খুলনা সার্কিট হাউজে বাসের যাত্রী এবং ভারতীয় প্রতিনিধি দলকে শুভেচ্ছা জানানো হবে। খুলনা জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে আগামী বছরের প্রথম থেকে খুলনা-কলকাতা ট্রেন চলাচলও শুরু হবে। দুদেশের মধ্যে নতুন করে ট্রেন ও বাস চলাচল শুরুর প্রক্রিয়ায় আশান্বিত হয়েছে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষ। যোগাযোগ ব্যবস্থার এ উন্নয়নে খুলনাঞ্চলের আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্যে ব্যাপক সম্প্রসারণ ঘটবে। এর আগে ১৮৬৪ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি প্রথম খুলনা-বেনাপোল-কলকাতা বাস রুট চালু হয়।

খুলনার জেলা প্রসাশক নাজমুল আহসান জানান, কলকাতা থেকে ভারতীয় বাসটি খুলনায় এসে পৌঁছানোর পর খুলনা সার্কিট হাউজে আগতদের অভ্যর্থনা জানানো হবে। বাসটিতে ভারতীয় একটি প্রতিনিধি দল আসবে।

এ সময় বাংলাদেশ সড়ক ও পরিবহণ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব চন্দন কুমার দে খুলনায় উপস্থিত থাকবেন। বাসটি একদিন থাকার পর বুধবার সকালে ভারতের উদ্দেশে ছেড়ে যাবে।

কলকাতার রবি জেনারেল হাসপাতালের সামনে থেকে স্থানীয় সময় দুপুর সাড়ে ১২টায় এ রুটে বাস সার্ভিস উদ্বোধন করেন পশ্চিমবঙ্গের পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। বেনাপোল দিয়ে যশোর হয়ে এই রুটে বাস চালাবে ভারতের প্রতিষ্ঠান ভূতল পরিবহন নিগম।

সার্কভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে সরাসরি বাস সার্ভিস চালুর ক্ষেত্রে স্বাক্ষরিত সমঝোতা স্মারকের অংশ হিসেবে বাংলাদেশ-ভুটান-ইন্ডিয়া-নেপাল মোটর ভেহিকেলস এগ্রিমেন্টের (বিবিআইএন-এমভিএ) আওতায় এ বাস সার্ভিস চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ সার্ভিসকে দীর্ঘস্থায়ী করতে এডিবির টাকায় কলকাতা-পেট্রাপোল জাতীয় সড়ক চার লেনে উন্নীত করা হবে।

বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির সভাপতি শেখ আশরাফুজ্জামান বলেন, খুলনা-কলকাতা রুট চালু হলে এ অঞ্চলের অর্থনীতির চাকা জোরালোভাবে ঘুরবে। দুদেশের আঞ্চলিক যোগাযোগ, ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্ষেত্র প্রসারিত হবে। ভারত থেকে আমদানি-রপ্তানির ক্ষেত্রে পণ্য আনা-নেওয়া সহজ হবে। ব্যবসায়ীরা লাভবান হবেন।

তিনি আরো বলেন, এ অঞ্চলের রোগীদের একটি বড় অংশ ভারতের চিকিৎসা সেবার ওপর নির্ভরশীল। সরাসরি বাস ও ট্রেন সার্ভিস চালু হলে রোগীরা খুব সহজেই সেখান থেকে সেবা নিয়ে আসতে পারবে।

বাস ও ট্রেন সার্ভিস চালু হলে ব্যবসায়ীরা বেশি উপকৃত হবেন বলে দাবি করেছেন অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন মালিক গ্রুপের মহাসচিব ব্যবসায়ী নেতা অ্যাডভোকেট সাইফুল ইসলাম।

তিনি বলেন, দুদেশের নাগরিকদের যাতায়াত বাড়বে। উভয় দেশের পর্যটন খাত বিকশিত হবে। ব্যবসায়ীরা খুব সহজেই যাতায়াত করতে পারবে। পণ্য আনা-নেওয়া সহজ হলে বিনিয়োগ বাড়বে।

উল্লেখ্য, এর আগে গত ১৯ আগস্ট যশোরে এক মতবিনিময় সভায় ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা এ রুটটি চালুর কথা জানান। আগামী বছরের শুরু থেকেই যাত্রীবাহী রেল যোগাযোগ চালু হবে।

আপনার মতামত জানানঃ