ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  ক্রাইম   »   খুলনায় নকল ওষুধ কারখানার মালিক কারাগারে

খুলনায় নকল ওষুধ কারখানার মালিক কারাগারে

October 11, 2016 - 2:22 PM

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা : খুলনায় নকল ওষুধ কারখানার মালিক শিল্পপতি কাজী শাহনেওয়াজকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকেলে খুলনার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এদিকে পুলিশ তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে পাঁচ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেছে।

এর আগে নকল ওষুধ উদ্ধারের ঘটনায় মঙ্গলবার রূপসা থানায় কাজী শাহনেওয়াজসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে র‌্যাব। র‌্যাব-৬’র ডিএডি নাজমুল হুদা বাদী হয়ে রূপসা থানায় ওই মামলা করেন।

অন্য আসামিরা হলেন শাহনেওয়াজ সি ফুডের কর্মকর্তা জাকির হোসেন, হাবিবুর রহমান ও সজীব। এদের মধ্যে কাজী শাহনেওয়াজ বাদে বাকি সবাই পলাতক রয়েছেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রূপসা থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই সাজেদুল ইসলাম জানান, গ্রেপ্তারকৃত কাজী শাহনেওয়াজকে খুলনার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানানো হয়েছে। পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

র‌্যাব-৬’র পরিচালক খোন্দকার রফিকুল ইসলাম জানান, খুলনার চর রূপসার রপ্তানিযোগ্য হিমায়িত মাছ প্রক্রিয়াজাতকরণ প্রতিষ্ঠান শাহনেওয়াজ সি ফুডসের অফিস ভবনে প্রিন্স ডিস্ট্রিবিউশন অ্যান্ড কোম্পানি নামে একটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। ওই প্রতিষ্ঠান হারবাল ওষুধ, কসমেটিক, পাউডার, সিল্কী শ্যাম্পু, সরিষার তেল, হারবাল মেছতা ক্রিম,স্পট ক্রিম, চিরতা ক্যাপসুলসহ নানা ধরনের এনার্জি ট্যাবলেট ও ক্যাপসুল উৎপাদন করছে।

প্রতিষ্ঠানটি শাহনেওয়াজ গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান। র‌্যাবের অভিযানে ওই প্রতিষ্ঠানের উৎপাদিত পণ্যও ভেজাল বলে প্রমাণিত হয়েছে। এখানে চালের গুঁড়া ও কেমিক্যাল দিয়ে মানব স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর নকল ওষুধ তৈরি করা হয়। পরে উৎপাদিত নকল ওষুধ মাছ কোম্পানির গাড়িতে করে একটি সিন্ডিকেটের মাধ্যমে ঢাকার মিডফোর্ট মার্কেটে বিপণন করা হয়।

উল্লেখ্য, সোমবার খুলনার চর রূপসার ওই কারখানায় র‌্যাব-১ ও র‌্যাব-৬ এর যৌথ দল অভিযান পরিচালনা করে বিপুল পরিমাণ ওই সব নকল পণ্য সামগ্রী জব্দ করা হয়।

আপনার মতামত জানানঃ