ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  প্রধান সংবাদ   »   ক্রিকেটে বাংলাদেশ একদিন বিশ্বকাপ জিতবে- প্রধানমন্ত্রী

ক্রিকেটে বাংলাদেশ একদিন বিশ্বকাপ জিতবে- প্রধানমন্ত্রী

September 4, 2016 - 8:13 AM

ডেস্ক রিপোর্ট : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ক্রিকেটে বাংলাদেশ একদিন বিশ্বকাপ জিতবে।

রোববার দুপুরে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

ক্রিকেটে বাংলাদেশের শক্তিশালী অবস্থানের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অঙ্গনে উঠে এসেছে বাংলাদেশের নাম। বাংলার রয়েল বেঙ্গল টাইগাররা টাইগার হিসেবেই নিজেদের পরিচিত করেছে। ইনশা আল্লাহ আমরা একদিন বিশ্বকাপ জয় করব।’

তিনি বলেন, ‘আমরা ক্ষমতায় আসার পরে ক্রীড়া অঙ্গনকে সজীব করে তুলতে শুরু করি। বাংলাদেশ টিম বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়ার পরে অনেকে মন্তব্য করেছিলেন, বাংলাদেশ দল প্রস্তুত না। আমাদের ছেলেরা প্রমাণ করেছে তারা বিশ্বকাপ খেলার যোগ্য।’

এ সময় অনূর্ধ্ব-১৬ নারী ফুটবল দলের প্রশংসা করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘৯৬ সালে যখন মেয়েদের খেলা শুরু করি, তখন অনেক জেলা থেকে বিশেষ করে রাজশাহীতে খেলতে যায়, সেখানে আমরা প্রচণ্ড বাধা পেয়েছিলাম। এখন আমরা সে পরিবেশ থেকে উত্তরণ ঘটিয়েছি। এরাই আস্তে আস্তে বড় হয়ে আরো সুনাম বয়ে আনবে।’

তিনি বলেন, ‘মেয়েরা যা পারছে, ছেলেরা তা পারছে না। মেয়েরা ১০ গোল দেয় আর ছেলেরা ৫ গোল খেয়ে আসে। তারাও (ছেলেরা) পারবে না তা নয়, ভবিষ্যতে তারাও একদিন পারবে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জাতিসংঘ ৬ এপ্রিল আন্তর্জাতিক খেলাধুলা দিবস পালন করে। আমরাও এদিনটি পালন করতে পারি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘খেলাধুলার মধ্য দিয়ে ছেলেমেয়েদের শৃঙ্খলাবোধ, অধ্যবসায়, দায়িত্ববোধ, কর্তব্যবোধ, দেশপ্রেম জাগ্রত হয়। যত বেশি আমরা আমাদের ছেলেমেয়েদের খেলাধুলার সাথে সম্পৃক্ত করতে পারব, তারা চিন্তা, মন, মননে অনেক বেশি শক্তিশালী হবে। জঙ্গিবাদ ছেলেমেয়েদের মানসিকতা নষ্ট করে দিচ্ছে। এখান থেকে ফিরিয়ে আনতে হলে খেলাধুলার সুযোগ সৃষ্টি করতে হবে।’

প্রধানমন্ত্রী জানান, শারীরিকভাবে সুস্থদের চেয়ে প্রতিবন্ধীরা বেশি ভালো করেছে। তারা স্পেশাল অলিম্পিকে ২১টি স্বর্ণসহ ৭১টি ট্রফি নিয়ে আসে দেশের হয়ে। প্রতিবন্ধীদের জন্য আলাদা কমপ্লেক্স তৈরি করা হচ্ছে। ক্রিকেটও তারা ভালো খেলে। কাজেই তাদের খেলার সঙ্গে সম্পৃক্ত করা হচ্ছে।

গ্রামে অনেক খেলাধুলা এখন বিলুপ্তির পথে। সেগুলো আবার চালু করার কথাও বলেছেন প্রধানমন্ত্রী।

এ ছাড়া প্রতিটি বিভাগীয় শহরে আবাসন ব্যবস্থাসহ আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন খেলাধুলার ব্যবস্থা করা হবে বলেও জানান তিনি। কক্সবাজারে একটি ফুটবল মাঠ নির্মাণের জন্য এরই মধ্যে জায়গাও চিহ্নিত করা হয়েছে। একই সঙ্গে প্রতিটি উপজেলায় মিনি স্টেডিয়াম করা হবে। এরই মধ্যে ৪৯০টি উপজেলায় স্টেডিয়াম নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে। এসব কাজে সমাজের বিত্তশালীদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান প্রধামন্ত্রী।

আপনার মতামত জানানঃ