ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  জাতীয়   »   কোরবানির গরুর চামড়ার দাম নির্ধারণ বৈঠক সোমবার

কোরবানির গরুর চামড়ার দাম নির্ধারণ বৈঠক সোমবার

September 4, 2016 - 5:00 PM

ঢাকা: কোরবানির কয়েকদিন আগেই চামড়ার দাম নির্ধারণ এবং তা সবাইকে জানানোর নির্দেশনা ছিল সরকারের। কিন্তু এখনো এ বিষয়ে চামড়া ব্যবসায়ীরা কোনো সিদ্ধান্তে আসতে পারেননি। এ অবস্থায় সোমবার সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে বৈঠকে বসতে যাচ্ছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

দাম নির্ধারণের বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ বাংলাদেশ ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিটিএ) সভাপতি শাহিন আহমেদ বলেন, ‘এ বিষয়ে এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি। আমরা বসে কথা বলে শিগগিরই দাম ঠিক করবো।’

তবে গতবারের থেকে চামড়ার দাম কম হতে পারে বলেও জানান তিনি।

এর কারণ হিসেবে তিনি বলেন, বিশ্ববাজারে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্যের অব্যাহতভাবে কমছে। এর প্রভাব পড়বে আমাদের দেশেও।

তবে দাম নির্ধারণ না হলেও এরইমধ্যে চামড়া বাণিজ্যে অংশ নিতে মৌসুমি ব্যবসায়ীরা দেশব্যাপী দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন। গ্রাম থেকে রাজধানী ছুটছেন কসাই ও ফড়িয়ারা। বসে নেই ট্যানারি মালিকরাও। চামড়া সংগ্রহে পর্যাপ্ত লবণ ও যাবতীয় কেমিক্যাল সংগ্রহ করেছে ট্যানারিগুলো। কিন্তু চামড়ার মূল্য নির্ধারণ করছেন না ব্যবসায়ীরা।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, সোমবার চামড়ার দাম নির্ধারণের জন্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি, বাংলাদেশ ফরেন ট্রেড ইনস্টিটিউট, রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো, বাংলাদেশ ব্যাংক ও সংশ্লিষ্ট দপ্তর, ট্যানারি অ্যাসোসিয়েশনগুলোর প্রতিনিধিদের নিয়ে বৈঠকে বসার কথা রয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে চামড়ার দাম নির্ধারণে কোনো সংকেত পাওয়া যায়নি।

এদিকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, প্রতিবছরই কমছে চামড়ার দাম। এক্ষেত্রে ব্যবসায়ীদের বাস্তবতা হোক আর অন্যকিছু হোক, প্রান্তিক ব্যবসায়ীরা প্রতিবছরই লোকসানে পড়েন।

তাই কোরবানির চামড়ার দাম কমানো রোধে সরকার এবার দাম নির্ধারণ করে দেওয়ার বিষয়ে অনড়। এবং সোমবারের বৈঠকে নির্ধারণ করে দেওয়া হতে পারে বলেও বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে।

এ ছাড়া সরকারের পক্ষ থেকে আশঙ্কা করা হচ্ছে, সঠিক ও ন্যায্য দাম নির্ধারিত না হলে কাঁচা চামড়া পাচার হতে পারে। এদিকে পাচার রোধে ইতিমধ্যে সীমান্ত এলাকায় বিজিবির টহল জোরদার করার নির্দেশও দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

এর আগে গত ১০ আগস্ট চামড়ার মূল্য নির্ধারণে প্রথম দফার বৈঠক হয়েছিল বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে। আসন্ন ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে পশুর চামড়ার সুষ্ঠু সংগ্রহ, রক্ষণাবেক্ষণ এবং সর্বস্তরে যৌক্তিক মূল্য নিশ্চিতসহ যেকোনো নৈরাজ্য রোধে বৈঠকে মন্ত্রণালয় কিছু নির্দেশনা দিয়েছিল।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় বলেছিল, ক্রেতা-বিক্রেতা কোনো পক্ষই যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হন সে কারণে আগে থেকেই মাঠপর্যায়ে কোরবানির চামড়ার মূল্য নির্ধারণ করতে হবে। আর এই দাম নির্ধারণ হতে হবে যৌক্তিক এবং আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ। নির্ধারিত দামের সঙ্গে চামড়া সংশ্লিষ্ট সবকটি সংগঠনকেও একমত হতে হবে।

কোরবানি শুরুর কয়েকদিন আগেই এটি জাতীয়ভাবে ঘোষণা দিতে হবে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন বলেন, কোরবানির চামড়ার কেনাকাটা নিয়ে কোনো পক্ষ যাতে ক্ষতির শিকার না হয়, মূলত সে জন্যই আগাম মূল্য নির্ধারণের ঘোষণা দেওয়া জরুরি। চামড়া নিয়ে সব মহলের আগাম প্রস্তুতির জন্যই বৈঠক ডাকা হয়েছে। বৈঠকে আমরাও কিছু নির্দেশনা দেব, চামড়া সংশ্লিষ্টদেরও বিভিন্ন অভিযোগের কথা শুনব। এরপর একটি সিদ্ধান্ত হবে, যা জাতীয়ভাবে ঘোষণা করা হবে।

তবে মূল্য যাই নির্ধারণ করা হোক, তা যেন যৌক্তিক এবং আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ হয় সে বিষয়ে নজর রাখার কথাও জানান তিনি।

আপনার মতামত জানানঃ