ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  জাতীয়   »   কলকাতায় শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ বইমেলা

কলকাতায় শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ বইমেলা

August 29, 2016 - 11:18 AM

সচিবালয় প্রতিবেদক : আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে কলকাতায় শুরু হচ্ছে ‘বাংলাদেশ বইমেলা’। ১০ দিনব্যাপী এ বইমেলা চলবে ১০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্র ও রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) সহযোগিতায় এবং কলকাতাস্থ বাংলাদেশ উপদূতাবাসের ব্যবস্থাপনায় এ বইমেলার আয়োজন করছে বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতি।

সোমবার এ উপলক্ষে তথ্য অধিদপ্তরের সম্মেলন কক্ষে প্রেস ব্রিফিংয়ের আয়োজন করা হয়। ব্রিফিংয়ে সংস্কৃতি সচিব আক্তারী মমতাজ বইমেলার তথ্য-উপাত্ত, লক্ষ্য, উদ্দেশ্যসহ যাবতীয় বিষয় সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন।

জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের পরিচালক মো. আক্তারুজ্জামান, বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতির সভাপতি ওসমান গণি ও সহসভাপতি মাজহারুল ইসলাম এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় সংস্কৃতি সচিব বলেন, সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় একটি জ্ঞানভিত্তিক, মানবিক, রুচিশীল, সংস্কৃতিমনা অসাম্প্রদায়িক দেশ গঠনে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এ উদ্দেশে বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। দেশব্যাপী ও দেশের বাইরে বইমেলা আয়োজন এবং সরকারি ও বেসরকারি লাইব্রেরিকে পৃষ্ঠপোষকতা প্রদান এর মধ্যে অন্যতম।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের বন্ধন সুদৃঢ়। কলকাতায় বাংলদেশ বইমেলা আয়োজনের মাধ্যমে ভারতের জনগণের কাছে এ দেশের সমৃদ্ধ সাহিত্যভাণ্ডার ও লেখকদের ব্যাপকভাবে তুলে ধরা সম্ভব হবে। এ প্রক্রিয়ায় একদিকে যেমন আমাদের প্রকাশনা শিল্পের প্রসার ঘটবে অন্যদিকে দুই দেশের বন্ধুত্বের বন্ধন আরো শক্তিশালী হবে।

আক্তারী মমতাজ বলেন, দেশের সাহিত্যকে বহির্বিশ্বের কাছে পৌঁছে দিতে অনুবাদের কোনো বিকল্প নেই। এ লক্ষ্যে মন্ত্রণালয় কাজ করছে এবং বিভিন্ন প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানকে প্রণোদনা দিচ্ছে। কলকাতা ছাড়াও ফ্রাঙ্কফুর্ট ও লন্ডন বইমেলায় বাংলাদেশের অংশগ্রহণের বিষয়টি উল্লেখ করে তিনি আগামীতে আরো বেশি আন্তর্জাতিক বইমেলায় বাংলাদেশের অংশগ্রহণের ব্যাপারে আশা প্রকাশ করেন।

প্রসঙ্গত, গত পাঁচ বছর ধরে কলকাতায় বাংলাদেশ বইমেলা হচ্ছে। প্রথম তিন বছর এ মেলা হয় গণকেন্দ্র শিল্প সংগ্রহশালায়। গত দুই বছর এটি রবীন্দ্র সদনের উন্মুক্ত প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হয়। ধারাবাহিকভাবে এ বছরও বইমেলা রবীন্দ্র সদনের উন্মুক্ত প্রাঙ্গণে হবে।

১ সেপ্টেম্বর বিকেল ৫টায় ‘বাংলাদেশ বইমেলা কোলকাতা-২০১৬’ এর উদ্বোধন করবেন এমিরেটাস অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান। প্রধান অতিথি হিসেবে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের শিক্ষামন্ত্রী ড. পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও বিশেষ অতিথি হিসেবে বিশিষ্ট কবি ও প্রাবন্ধিক শঙ্খ ঘোষের উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।

এবারের মেলায় পাঁচটি সেমিনার হবে। এগুলো হলো- ‘বাঙালি জাতি ও জাতীয় নায়ক’, ‘গ্রন্থসেতু নির্মাণ : লেখক, পাঠক, প্রকাশক ও নীতিনির্ধারকদের ভূমিকা’, ‘লালন সঙ্গীত’, ‘প্রকাশনায় নারী’ এবং ‘দুই বাংলার শিশুসাহিত্য : রহস্য, রোমঞ্চ ও অ্যাডভেঞ্চার’।

মেলার সাংস্কৃতিক আয়োজনে সঙ্গীত পরিবেশন করবেন লালনসঙ্গীত শিল্পী ফরিদা পারভীন এবং মেহের আফরোজ শাওনসহ পশ্চিমবঙ্গে বসবাসরত বাংলাদেশি ও পশ্চিমবঙ্গের শিল্পীরা। এ ছাড়া বাংলাদেশ ও ভারতের কবিগণ কবিতা আবৃত্তি করবেন।

‘গ্রন্থসেতু নির্মাণ : লেখক, পাঠক, প্রকাশক ও নীতিনির্ধারকদের ভূমিকা’ শীর্ষক সেমিনারে মূল প্রবন্ধ পাঠ করবেন বাংলাদেশের প্রকাশক ও লেখক মফিদুল হক। সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে থাকবেন পশ্চিমবঙ্গ সরকারের বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভন দেব বর্মণ।

এবারের মেলায় বাংলাদেশের ৫০টি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করছে। প্রতিদিন দুপুর ২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত এ মেলা সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে। শনি ও রোববারের সময়সূচি হবে বিকেল ৩টা থেকে রাত ৮টা।

আপনার মতামত জানানঃ