ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  Uncategorized   »   এই পথ যদি না শেষ হয়

এই পথ যদি না শেষ হয়

September 9, 2016 - 10:00 AM

টাঙ্গাইল : ‘এই পথ যদি না শেষ হয়, তবে কেমন হতো তুমি বলোতো…’ শিল্পী হেমন্ত মুখোপাধ্যায়ের এ গানটি মনে রোমান্টিক অনুভব জাগালেও ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের যাত্রীদের ক্ষেত্রে এই গান ভোগান্তি ছাড়া অন্য কোনো অনুভূতি জাগায় না। তারা মনেপ্রাণে দ্রুত এই যাত্রাপথের শেষ চাইছেন।

ঈদের ছুটিতে ঘরমুখো মানুষের ভিড় আর কোরবানির পশুবাহী গাড়ির চাপে যানজটে নাকাল যাত্রীরা। মহাসড়কে ৩-৪ ঘণ্টার পথ পাড়ি দিতে সময় লাগছে ৮-১০ ঘণ্টা। আর এই যানজটে সবচেয়ে বেশি ভোগান্তিতে পড়েছে নারী ও শিশুরা।

নাড়ির টানে ঘরে ফেরা। ব্যস্ত নগরজীবন ছেড়ে ছুটির কয়েকটি দিন পরিবার-পরিজনের সঙ্গে কাটাতে রাজধানী ছাড়ছে মানুষ। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বাসে-ট্রেনের ছাদে করেও স্বজনদের কাছে যেতে তাদের পাড়ি দিতে হচ্ছে দীর্ঘ পথ। কিন্তু ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে বাড়িফেরা সেই মানুষগুলোর আনন্দে ভাটা দিয়েছে বেরসিক যানজট। বৃহস্পতিবার রাত থেকে এই মহাসড়কে তীব্র যানজটে দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রীরা।

গতরাতে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে আনারস বোঝাই ট্রাক ও পিকআপের সংঘর্ষে এই যানজটের সূত্রপাত। দুর্ঘটনাকবলিত যানবাহন মহাসড়কে বিকল হয়ে পড়লে দুই ঘণ্টা পর তা সরিয়ে নেয় হাইওয়ে পুলিশ। কিন্তু ততক্ষণে সংযোগ সড়কে ঢুকে পড়ে শত শত যানবাহন। ফলে সৃষ্টি হয় দীর্ঘ যানজটের।

পরবর্তীতে আজ শুক্রবার সকালে গাজীপুরের চন্দ্রা ও টাঙ্গাইলের বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্বপাড়সহ বেশ কয়েকটি স্থানে যানবাহন বিকল হয়ে পড়লে যানজটের মাত্রা আরো বৃদ্ধি পায়। হাইওয়ে পুলিশ এসব যানবাহন দ্রুত সরিয়ে নিলেও, যানবহনের চাপে থেমে থেমে চলছে গাড়ি। দীর্ঘ সময় মহাসড়কে বসে থাকায় গাড়ির আসনেই ঘুমাতে দেখা গেছে ক্লান্ত চালকদের।

%e0%a6%9f%e0%a6%be%e0%a6%99%e0%a7%8d%e0%a6%97%e0%a6%be%e0%a6%87%e0%a6%b2-%e0%a6%ae%e0%a6%b9%e0%a6%be%e0%a6%b8%e0%a7%9c%e0%a6%95%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%af%e0%a6%be%e0%a6%a4%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a7%80

সরেজমিনে মহাসড়কের টাঙ্গাইলের মির্জাপুর, গোড়াই, পাকুল্যা, টাঙ্গাইল বাইপাস, এলেঙ্গা, বঙ্গবন্ধুর পূর্বপাড়ে দেখা যায়, এই পয়েন্টগুলোতে যাত্রী ওঠানামার জন্য দাঁড়াচ্ছে যানবাহন। সামান্য সময়ের জন্য গাড়ি থেমে গেলেও সৃষ্টি হচ্ছে দীর্ঘ যানজটের।

তবে টাঙ্গাইল জেলা পুলিশ ও হাইওয়ে পুলিশ বলছে, গত বছরগুলোর তুলনায় এবারের যানজট অনেকটাই কম। সামান্য কিছু ভোগান্তি ছাড়া নির্বিঘেœই মানুষ বাড়ি পৌঁছতে পারছে। যানজট নিরসনে মহাসড়কে পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মহাসড়ক ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে দেশের উত্তর ও দক্ষিণাঞ্চলের ২২টি জেলার প্রতিদিন গড়ে ১৮-২০ হাজার যানবাহন চলাচল করে। প্রতি ঈদে ঘরমুখো মানুষের চাপে সে সংখ্যা কয়েকগুণ বৃদ্ধি পায়। ফলে এই মহাসড়কে সৃষ্টি হয় দীর্ঘ যানজটের।

আপনার মতামত জানানঃ