ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  সারা বাংলা   »   ইউএনও’র ওপর হামলাঃ আসাদুলকে থানায় হস্তান্তর

ইউএনও’র ওপর হামলাঃ আসাদুলকে থানায় হস্তান্তর

সেপ্টেম্বর ৫, ২০২০ - ৮:৫১ অপরাহ্ণ
আসাদুলকে থানায় হস্তান্তর

ঘোড়াঘাট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানম ও তার বাবার ওপর হামলার প্রধান আসামি আসাদুল ইসলামকে।

শনিবার (৫ সেপ্টম্বর) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রংপুর র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-১৩ এর অধিনায়ক রেজা আহম্মেদ ফেরদৌস।

তিনি আরো জানান, এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে দুই আসামিকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। তবে প্রধান আসামি অসুস্থ থাকায় তাকে মেডিকেলে ভর্তি করা হয়। পরে সুস্থবোধ করায় তাকে সন্ধ্যায় থানায় হস্তান্তর করা হয়।

তিনি আরো জানান, বিকেলে তার শারীরিক সুস্থ বোধ করায় ঘোড়াঘাট থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তরের জন্য র‍্যাব-১৩ একটি টিম তাকে নিয়ে রওনা হন। পরে তাকে থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

এর আগে সকালে ঘোড়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিরুল ইসলাম বলেন, শুক্রবার রাতে মামলার দ্বিতীয় আসামি উপজেলার চকবামুনিয়া বিশ্বনাথপুর গ্রামের মৃত ফারাজ উদ্দিনের ছেলে রং মিস্ত্রি নবিরুল ইসলাম (৩৫) ও একই এলাকার খোকা চন্দ্রের ছেলে সান্টু চন্দ্র দাসকে (২৮) ঘোড়াঘাট থানায় হস্তান্তর করে র‌্যাব-১৩। পরে আসামিদের দিনাজপুর আদালতে পাঠানো হয়।

ওই সময় তিনি আরও জানান, অন্যদিকে মামলার প্রধান আসামি উপজেলার সাগরপুর গ্রামের আমজাদ হোসেনের ছেলে আসাদুল ইসলাম (৩৫) অসুস্থ থাকায় তাকে রংপুর মেডিকেলে ভর্তি করা হয়। ইউএনও ওয়াহিদা খানম ও তার বাবার ওপর হামলার ঘটনায় দায়ের করা মামলার প্রধান আসামি উপজেলা যুবলীগের সদস্য (বহিষ্কৃত) আসাদুল হক (৩৫)।

প্রসঙ্গত, গত বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত ৩টার দিকে দুর্বৃত্তরা ঘোড়াঘাট উপজেলা পরিষদ চত্বরে ইউএনও ওয়াহিদা খানমের সরকারি বাসভবনে প্রবেশ করে। হত্যার উদ্দেশে তারা ইউএনও ওয়াহিদা খানম ও তার বাবা ওমর আলীকে হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করে গুরুতর জখম করে।

পরে সকালে আহত বাবা-মেয়েকে প্রথমে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে ইউএনও ওয়াহিদাকে বিমানবাহিনীর হেলিকপ্টারে ঢাকায় আনা হয়। বর্তমানে ঢাকার আগারগাঁওয়ে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্স ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তার বাবা রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

Tags:

আপনার মতামত জানানঃ