ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  সারা বাংলা   »   আমতলী ৬৬ স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী  মাদ্রাসায় কোন শিক্ষার্থীর বার্ষিক পরীক্ষায় দেয়নি! 

আমতলী ৬৬ স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী  মাদ্রাসায় কোন শিক্ষার্থীর বার্ষিক পরীক্ষায় দেয়নি! 

ডিসেম্বর ১০, ২০১৯ - ৯:৫১ অপরাহ্ণ
এইচ এম কাওসার মাদবার বরগুনা প্রতিনিধিঃ বরগুনার আমতলী উপজেলার ৬৬ টি স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসায় কোন শিক্ষার্থী বার্ষিক পরীক্ষায় নেয়নি। সম্প্রতিক সমাপনী পরীক্ষায় ৬৫৫ জন শিক্ষাথর্ী পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করেছে। কিন্তু বার্ষিক পরীক্ষায় একজনও নেই। কাগজে কলমে এ সকল মাদ্রাসা থাকলেও বাস্তবে ঘর নেই ও শিক্ষাথর্ী নেই। সমাপনী পরীক্ষায় মাদ্রাসা প্রধানরা ধার করা শিক্ষাথর্ী এনে পরীক্ষায় অংশগ্রহন করিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
জানাগেছে, আমতলী উপজেলায় কাগজে কলমে ৬৬ টি স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা রয়েছে। ওই মাদ্রাসার কোন অস্তিত্ব নেই। কিছু মাদ্রাসায় শুধুমাত্র একটি ঘর আছে। চেয়ার নেই, টেবিল নেই। কোন শিক্ষাথর্ীও নেই। গত ২৭ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য বার্ষিক পরীক্ষায় কোন শিক্ষাথর্ী পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেনি। মঙ্গলবার ছিল তৃতীয়, চতুর্থ শ্রেনীর গনিত পরীক্ষা। কিন্তু কোন শিক্ষাথর্ী পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেনি।  অভিযোগ রয়েছে সম্প্রতি সমাপনী পরীক্ষায় অংশ নেয়া ৬৫৫ জন পরীক্ষাথর্ীর অধিকাংশ পার্শ্ববতর্ী দাখিল মাদ্রাসার ষষ্ঠ, সপ্তম ও অষ্টম শ্রেনীর ধার করা। বাস্তবে ওই নামের কোন পরীক্ষাথর্ী খুজে পাওয়া যাবে না।
সরকার ঘোষিত এমপিওভুক্তিতে অন্র্Íভুক্ত হওয়ার জন্য একটি দালাল চক্র এ কাজটি করেছে বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। এদিকে সরকার স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা এমপিওভুক্তির ঘোষনার খবর শুনে একটি দালাল চক্র নড়েচরে বসেছে। তারা রাতারাতি কাগজে কলমে মাদ্রাসা দেখিয়ে শিক্ষক নিয়োগ দেয়ার নাম করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন।
উপজেলার কাউনিয়া, উত্তর কাউনিয়া, চরখালী , রহমতপুর ,নীল মাদবপুর, উত্তর গাজীপুর ও সুন্নারবঁাধ দক্ষিণ পশ্চিম চিলা আনোয়ারিয়া স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসায় মঙ্গলবার সরেজমিনে গিয়ে দেখাগেছে, কোন শিক্ষাথর্ী বার্ষিক পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করেনি। মাদ্রাসার কোন ঘর নেই। কোন শিক্ষক নেই। স্থানীয় মানুষের কাছে জানতে চাইলে কারা বলেন, এই স্থানে কোন শিক্ষাথর্ী পড়তে এসেছে তা আমরা দেখি নাই। এখন শুনছি এখানে নাকি মাদ্রাসা হবে।
আমতলী জমিয়েতুল মোদার্রেসিনের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, কিছু কিছু মাদ্রাসায় বার্ষিক পরীক্ষা নিয়েছে। আমতলী প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ মজিবুর রহমান বলেন, ইবতেদায়ী মাদ্রাসার এমপিওভুক্তির জন্য মন্ত্রনালয়ে তদন্ত প্রতিবেদন চেয়েছে। উপজেলা নিবার্হী অফিসার ওই প্রতিবেদন দাখিলের জন্য একটি কমিটি করেছে। আমি ওই কমিটির আহবায়ক। কোন কোন মাদ্রাসায় বার্ষিক পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে তা আমার জানা নেই।
আমতলী উপজেলা নিবার্হী অফিসার মনিরা পারভীন বলেন, ইবতেদায়ী মাদ্রাসার এমপিওভুক্তির প্রতিবেদন দাখিলের জন্য তিন সদস্য বিশিষ্ঠ একটি কমিটি করা হয়েছে। ওই কমিটির তদন্ত প্রতিবেদনের আলোকে এমপিওভুক্তির সুপারিশ করা হবে।

আপনার মতামত জানানঃ