ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  প্রধান সংবাদ   »   ‘আগামী অর্থবছরেই নদী দূষণ রোধে অভিযান’

‘আগামী অর্থবছরেই নদী দূষণ রোধে অভিযান’

October 12, 2016 - 10:49 AM

নিজস্ব প্রতিবেদক : আগামী অর্থবছরের মধ্যে নদী দূষণের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু হবে বলে জানিয়েছেন নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান।

তিনি বলেন, ‘ইতিমধ্যে নদী দূষণের বিরুদ্ধে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটি আগামী জুন মাসের মধ্যে সব প্রতিবেদন জমা দেবে। সে আলোকে এ অর্থবছরের মধ্যে এ সংক্রান্ত সব পরিকল্পনা গ্রহণ করা হবে। পরিকল্পনা অনুযায়ী আগামী অর্থবছরের শুরুতেই নদী দূষণের বিরুদ্ধে কার্যক্রম শুরু হবে।’

বুধবার দুপুরে রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনী মিলনায়তনে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি আয়োজিত ‘মিট দ্য রিপোর্টার্স’ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

সরকার বড় বড় নদীগুলো দখল রোধে কাজ শুরু করেছে জানিয়ে শাজাহান খান বলেন, ‘ঢাকা শহরে নদী এবং ভূমিকে দখলমুক্ত করতে প্রতিনিয়ত কঠোর নীতি অনুশীলন করতে হচ্ছে। পাশাপাশি নদীগুলোকে রক্ষা করার জন্য জাতীয় নদী রক্ষা কমিশন গঠন করা হয়েছে। যেসব জায়গায় নদী দখল হয়েছে বলে আমাদের কাছে তথ্য আছে সেসব জায়গা পর্যবেক্ষণ করে দেখা হচ্ছে। শিগগিরই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

‘এক্ষেত্রে বড় বড় স্থাপনাগুলোর দিকে আগে নজর দেওয়া হয়েছে। কারা এসব দখল করেছে তাদেরও চিহ্নিত করা হয়েছে। নদী দখলমুক্ত করতে যে কোনো কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে দ্বিধা করব না।’ এসবের মূল হোতা হিসেবে যারা রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান মন্ত্রী।

বিএনপিকে কুঁজোর দল আখ্যায়িত করে তাদের দ্বারা আন্দোলন সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন মন্ত্রী।

বিএনপির আন্দোলন জনগণের ওপর নির্ভরশীল নয় উল্লেখ করে শাজাহান খান বলেন, ‘তাদের আন্দোলন জামায়াত-শিবিরের ক্যাডার এবং বিদেশিদের ওপর নির্ভরশীল। পাশাপাশি তাদের মূল উদ্দেশ্য হলো, যে কোনো মূল্যে যুদ্ধপরাধীদের রক্ষা করা।”

মিট দ্য রিপোর্টার্স অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি জামাল উদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক রাজু আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক জামাল হোসেন, প্রচার সম্পাদক কাফি কামাল, সমাজকল্যাণ সম্পাদক জিলানী মিল্টন প্রমুখ।

আপনার মতামত জানানঃ